গর্ত থেকে উদ্ধার হলো তিন ভাইয়ের লাশ
jugantor
গর্ত থেকে উদ্ধার হলো তিন ভাইয়ের লাশ

  গাইবান্ধা প্রতিনিধি  

১৯ মার্চ ২০২১, ২২:১১:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় বালুর গর্তে চাপা পড়ে তিন ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বেলকা কিশামত সদরে এ ঘটনা ঘটে। পরে বিকালে তাদের লাশ সেখান থেকে তোলা হয়।

নিহতরা হলো- গাইবান্ধা সদর উপজেলার বারোবলদিয়া গ্রামের মাসুদ মিয়ার দুই ছেলে আবির হোসেন (৫), হজরত আলী (৭) এবং বেলকা কিশামত সদরে শফিকুল ইসলামের ছেলে মামাতো ভাই রিফাত মিয়া (৩)।

পরিবারের লোকজন জানান, নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে গাইবান্ধার সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের বারোবলদিয়া গ্রামের মাসুদ মিয়ার দুই ছেলে আবির হোসেন ও হজরত আলী সকালে মামাতো ভাই রিফাত মিয়াকে নিয়ে খেলতে যায়।

বেলকা কিশামত সদর গ্রামে বালু দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে দীর্ঘদিন ধরে ভেকু দিয়ে বালু তোলার কারণে রাস্তার পাশে গর্তের সৃষ্টি হয়। সেই গর্তে তারা খেলার সময় পাড়ের একাংশ ধসে পড়লে তারা সবাই চাপা পড়ে।

এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু ঘটে। এদিকে দুপুরে তারা বাড়িতে না ফিরলে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী ওই গর্ত থেকে একে একে তিনটি লাশ উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সতত্যা স্বীকার করে বেলকা ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক।

সুন্দরগঞ্জ থানার পরিদর্শক তদন্ত মো. বুলবুল ইসলাম ও এসআই সেলিম রেজা জানান, এ নিয়ে থানায় ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।

গর্ত থেকে উদ্ধার হলো তিন ভাইয়ের লাশ

 গাইবান্ধা প্রতিনিধি 
১৯ মার্চ ২০২১, ১০:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় বালুর গর্তে চাপা পড়ে তিন ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বেলকা কিশামত সদরে এ ঘটনা ঘটে। পরে বিকালে তাদের লাশ সেখান থেকে তোলা হয়।   

নিহতরা হলো- গাইবান্ধা সদর উপজেলার বারোবলদিয়া গ্রামের মাসুদ মিয়ার দুই ছেলে আবির হোসেন (৫), হজরত আলী (৭) এবং বেলকা কিশামত সদরে শফিকুল ইসলামের ছেলে মামাতো ভাই রিফাত মিয়া (৩)।

পরিবারের লোকজন জানান, নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে গাইবান্ধার সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের বারোবলদিয়া গ্রামের মাসুদ মিয়ার দুই ছেলে আবির হোসেন ও হজরত আলী সকালে মামাতো ভাই রিফাত মিয়াকে নিয়ে খেলতে যায়।

বেলকা কিশামত সদর গ্রামে বালু দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে দীর্ঘদিন ধরে ভেকু দিয়ে বালু তোলার কারণে রাস্তার পাশে গর্তের সৃষ্টি হয়। সেই গর্তে তারা খেলার সময় পাড়ের একাংশ ধসে পড়লে তারা সবাই চাপা পড়ে। 

এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু ঘটে। এদিকে দুপুরে তারা বাড়িতে না ফিরলে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বাড়ির পার্শ্ববর্তী ওই গর্ত থেকে একে একে তিনটি লাশ উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সতত্যা স্বীকার করে বেলকা ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত মর্মান্তিক।

সুন্দরগঞ্জ থানার পরিদর্শক তদন্ত মো. বুলবুল ইসলাম ও এসআই সেলিম রেজা জানান, এ নিয়ে থানায় ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন