হেফাজতকে প্রতিহত করার ঘোষণা যুবলীগের
jugantor
হেফাজতকে প্রতিহত করার ঘোষণা যুবলীগের

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

২৭ মার্চ ২০২১, ২১:২৮:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতাল প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর যুবলীগ।

শনিবার বিকালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মৌলবাদীদের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে আয়োজিত এক বিক্ষোভ মিছিলপরবর্তী সমাবেশে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

যুবলীগ নেতারা সমাবেশ থেকে রোববারের হরতাল যে কোনো মূল্যে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন।

এদিকে শনিবার দুপুরে নগরীর ডিআইটি জামে মসজিদে কড়া পুলিশ প্রহরায় পথসভা করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর হেফাজতের নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে রোববারের হরতাল সফল করতে মাঠে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

পাশাপাশি প্রশাসনকে নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকারও আহবান জানিয়েছেন হেফাজতের নেতারা। তবে হরতাল নিয়ে সরকারি দল ও হেফাজতের এ মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে বেশ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। শনিবার সন্ধ্যা থেকেই পুরো শহরে থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছিল।

জানা গেছে, জেলা ও মহানগর যুবলীগের কয়েক হাজার নেতাকর্মী শনিবার বিকাল ৩টায় চাষাঢ়া থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক থেকে ডিআইটি হয়ে ২নং রেলগেট এসে শেষ করেন। এরপর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাৎ মো. শহীদ বাদল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল প্রমুখ।

সেখানে যুবলীগ নেতারা বলেন, মোদিবিরোধী আন্দোলনের নামে যে সহিংসতা ছড়ানো হচ্ছে তা শুধুমাত্র দেশে অরাজকতা সৃষ্টির নীলনকশার অংশ। আওয়ামী লীগের জন্ম জেলা নারায়ণগঞ্জে মৌলবাদীদের হরতালের নামে এ আস্ফালন সহ্য করা হবে না এবং করতেও দেয়া হবে না।

অপরদিকে শনিবার দুপুরে শহরের ডিআইটি মসজিদের সামনে আয়োজিত পথসভায় জেলা হেফাজতের আমীর মাওলানা আব্দুল আওয়াল বলেন, আমরা চাইলে নারায়ণগঞ্জকে ২ ঘণ্টার মধ্যে অচল করে দিতে পারি। কিন্তু আমরা শান্তির বাইরে কিছু করব না। ক্ষমতাসীনরা পুলিশের প্রহরায় বায়তুল মোকারম, হাটহাজারী, বাহ্মণবাড়িয়াতে হামলা করে আমাদের মাদ্রাসা ছেলেদের হত্যা করেছে গুলি করে। আমরা মনে করি তারা শহিদ হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর হেফাজতের আমীর মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান, মুফতি হারুন অর রশীদ প্রমুখ।

হেফাজতের পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল করার কথা থাকলেও পুলিশের বাধায় তা করতে পারেননি তারা।

এদিকে হেফাজতের ও যুবলীগের পাল্টাপাল্টি অবস্থানের ঘোষণা বেশ থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে নারায়ণগঞ্জে।

এ ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপার জাহেদুল আলম পিপিএম বলেন, নারায়ণগঞ্জে কাউকেই কোনো অরাজকতা বা শান্তি নষ্ট করতে দেয়া হবে না। আমরা যথেষ্ট প্রস্ততি নিয়ে রেখেছি।

হেফাজতকে প্রতিহত করার ঘোষণা যুবলীগের

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
২৭ মার্চ ২০২১, ০৯:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতাল প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর যুবলীগ। 

শনিবার বিকালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মৌলবাদীদের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে আয়োজিত এক বিক্ষোভ মিছিলপরবর্তী সমাবেশে এ ঘোষণা দেয়া হয়। 

যুবলীগ নেতারা সমাবেশ থেকে রোববারের হরতাল যে কোনো মূল্যে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন। 

এদিকে শনিবার দুপুরে নগরীর ডিআইটি জামে মসজিদে কড়া পুলিশ প্রহরায় পথসভা করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর হেফাজতের নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে রোববারের হরতাল সফল করতে মাঠে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। 

পাশাপাশি প্রশাসনকে নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকারও আহবান জানিয়েছেন হেফাজতের নেতারা। তবে হরতাল নিয়ে সরকারি দল ও হেফাজতের এ মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে বেশ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। শনিবার সন্ধ্যা থেকেই পুরো শহরে থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছিল। 

জানা গেছে, জেলা ও মহানগর যুবলীগের কয়েক হাজার নেতাকর্মী শনিবার বিকাল ৩টায় চাষাঢ়া থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক থেকে ডিআইটি হয়ে ২নং রেলগেট এসে শেষ করেন। এরপর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাৎ মো. শহীদ বাদল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল প্রমুখ। 

সেখানে যুবলীগ নেতারা বলেন, মোদিবিরোধী আন্দোলনের নামে যে সহিংসতা ছড়ানো হচ্ছে তা শুধুমাত্র  দেশে অরাজকতা সৃষ্টির নীলনকশার অংশ। আওয়ামী লীগের জন্ম জেলা নারায়ণগঞ্জে মৌলবাদীদের হরতালের নামে এ আস্ফালন সহ্য করা হবে না এবং করতেও দেয়া হবে না। 

অপরদিকে শনিবার দুপুরে শহরের ডিআইটি মসজিদের সামনে আয়োজিত পথসভায় জেলা হেফাজতের আমীর মাওলানা আব্দুল আওয়াল বলেন, আমরা চাইলে নারায়ণগঞ্জকে ২ ঘণ্টার মধ্যে অচল করে দিতে পারি। কিন্তু আমরা শান্তির বাইরে কিছু করব না। ক্ষমতাসীনরা পুলিশের প্রহরায় বায়তুল মোকারম, হাটহাজারী, বাহ্মণবাড়িয়াতে হামলা করে আমাদের মাদ্রাসা ছেলেদের হত্যা করেছে গুলি করে। আমরা মনে করি তারা শহিদ হয়েছে। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর হেফাজতের আমীর মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান, মুফতি হারুন অর রশীদ প্রমুখ। 

হেফাজতের পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল করার কথা থাকলেও পুলিশের বাধায় তা করতে পারেননি তারা। 

এদিকে হেফাজতের ও যুবলীগের পাল্টাপাল্টি অবস্থানের ঘোষণা বেশ থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে নারায়ণগঞ্জে। 

এ ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপার জাহেদুল আলম পিপিএম বলেন, নারায়ণগঞ্জে কাউকেই কোনো অরাজকতা বা শান্তি নষ্ট করতে দেয়া হবে না। আমরা যথেষ্ট প্রস্ততি নিয়ে রেখেছি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন