নবম শ্রেণির ছাত্রের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন
jugantor
নবম শ্রেণির ছাত্রের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন

  হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি  

২৮ মার্চ ২০২১, ২২:৪০:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রকে বিয়ের দাবিতে চার দিন ধরে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী অনশন করেছে।

খবর পেয়ে রোববার দুপুরে উপজেলার ৬নং বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের দিগছাইল গ্রামের বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। পরে ওই ছাত্রী প্রেমিকের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে।

অনশনকারী ছাত্রী যুগান্তরকে জানায়, গত ১৮ মার্চ একই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রের সঙ্গে চট্টগ্রামে গিয়ে একটি হোটেলে পাঁচ দিন ছিল তারা। সেখান থেকে ওই ছাত্রের মামা তাদের দুইজনকে বিয়ে দেবে বলে হাজীগঞ্জ বাজারে নিয়ে আসেন। কিন্তু হাজীগঞ্জ বাজারে আসার পর ওই কিশোর প্রেমিক ও তার মামা ছাত্রীকে একা রেখে পালিয়ে যায়।

এরপর থেকে মেয়েটি প্রতিদিন সকালে তার প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে বাড়ির বারান্দায় বসে অনশন করে।

অনশনের প্রথম দিন থেকেই ওই কিশোরের মাসহ স্বজনরা পালিয়ে যায়। তারপরও নাছোড়বান্দা ছাত্রী ওই বাড়িতে টানা চার দিন অনশন করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

তবে এ ঘটনার বিষয়ে গত ২১ মার্চ থেকে ওই কিশোর প্রেমিক নিখোঁজ বলে তার মা হাজীগঞ্জ থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি মো. হারুনুর রশীদ যুগান্তরকে বলেন, ধর্ষণের মামলা নেয়া হয়েছে। মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত কাজ চলছে।

নবম শ্রেণির ছাত্রের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন

 হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি 
২৮ মার্চ ২০২১, ১০:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রকে বিয়ের দাবিতে চার দিন ধরে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী অনশন করেছে।

খবর পেয়ে রোববার দুপুরে উপজেলার ৬নং বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের দিগছাইল গ্রামের বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। পরে ওই ছাত্রী প্রেমিকের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে।

অনশনকারী ছাত্রী যুগান্তরকে জানায়, গত ১৮ মার্চ একই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রের সঙ্গে চট্টগ্রামে গিয়ে একটি হোটেলে পাঁচ দিন ছিল তারা। সেখান থেকে ওই ছাত্রের মামা তাদের দুইজনকে বিয়ে দেবে বলে হাজীগঞ্জ বাজারে নিয়ে আসেন। কিন্তু হাজীগঞ্জ বাজারে আসার পর ওই কিশোর প্রেমিক ও তার মামা ছাত্রীকে একা রেখে পালিয়ে যায়।

এরপর থেকে মেয়েটি প্রতিদিন সকালে তার প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে বাড়ির বারান্দায় বসে অনশন করে।

অনশনের প্রথম দিন থেকেই ওই কিশোরের মাসহ স্বজনরা পালিয়ে যায়। তারপরও নাছোড়বান্দা ছাত্রী ওই বাড়িতে টানা চার দিন অনশন করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

তবে এ ঘটনার বিষয়ে গত ২১ মার্চ থেকে ওই কিশোর প্রেমিক নিখোঁজ বলে তার মা হাজীগঞ্জ থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি মো. হারুনুর রশীদ যুগান্তরকে বলেন, ধর্ষণের মামলা নেয়া হয়েছে। মেয়েটির অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত কাজ চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন