গৃহবধূ হত্যায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ আসামির যাবজ্জীবন
jugantor
গৃহবধূ হত্যায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ আসামির যাবজ্জীবন

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো  

৩১ মার্চ ২০২১, ১৫:০৮:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আদালত

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় গৃহবধূ সিদ্দিকা বেগম হত্যা মামলায় স্বামী-স্ত্রীসহ তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

বুধবার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবদুর রহিম এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন— পাকুন্দিয়া উপজেলার পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের মাইজহাটি কোনাপাড়া গ্রামের মোজাম্মেল হক (৪০), তার স্ত্রী সাজেদা খাতুন (৩৫) ও কামরুজ্জামান (৩২)। তাদের মধ্যে কামরুজ্জামান পলাতক রয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি জীবন কুমার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আদালত সূত্র জানায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে ২০০৯ সালের ৮ মে পাকুন্দিয়া উপজেলার কোনাপাড়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী সিদ্দিকা বেগমকে পিটিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী আবদুল কুদ্দুস বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে পাকুন্দিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ৭ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

গৃহবধূ হত্যায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ আসামির যাবজ্জীবন

 কিশোরগঞ্জ ব্যুরো 
৩১ মার্চ ২০২১, ০৩:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আদালত
ফাইল ছবি

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় গৃহবধূ সিদ্দিকা বেগম হত্যা মামলায় স্বামী-স্ত্রীসহ তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

বুধবার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবদুর রহিম এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন— পাকুন্দিয়া উপজেলার পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের মাইজহাটি কোনাপাড়া গ্রামের মোজাম্মেল হক (৪০), তার স্ত্রী সাজেদা খাতুন (৩৫) ও কামরুজ্জামান (৩২)। তাদের মধ্যে কামরুজ্জামান পলাতক রয়েছেন।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি জীবন কুমার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আদালত সূত্র জানায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে ২০০৯ সালের ৮ মে পাকুন্দিয়া উপজেলার কোনাপাড়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী সিদ্দিকা বেগমকে পিটিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী আবদুল কুদ্দুস বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে পাকুন্দিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ৭ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন