রাস্তায় নামলেন মেয়র, নিমেষেই উধাও যানজট!
jugantor
রাস্তায় নামলেন মেয়র, নিমেষেই উধাও যানজট!

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি  

০৫ এপ্রিল ২০২১, ২২:১৯:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

চাটমোহর পৌর শহরের ব্যস্ততম হাসপাতাল সড়ক। যেখানে প্রতিদিন সকাল হলেই রাস্তার দুই পাশে অটোভ্যান, অটোরিকশায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এতে হাসপাতালে আসা-যাওয়ার রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স থেকে শুরু করে পথচারীরা নানা দুর্ভোগের শিকার হতেন। যে কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভও ছিল প্রচুর।

আর বিষয়টি জানার পর সোমবার সকাল ৮টায় যানজট নিয়ন্ত্রণে নিজেই রাস্তায় নামলেন পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো। কাউন্সিলর পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে নিয়ে কখনও রাস্তার পাশে বসেন, আবার কখনও বা ঘোরাঘুরি করে যানজট নিয়ন্ত্রণ করেন মেয়র। এতে নিমেষেই উধাও যানজট।

শুধু তাই নয়, যানবাহন রাখার জন্য নির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ করে দেয়াসহ নানা নির্দেশনা দেন মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো। আর অস্থায়ী ভিত্তিতে কয়েকজন ব্যক্তিকে রেখে যান যানজট নিরসনে। পরে মেয়র করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে মাস্ক ও হাত ধোয়ার সাবান বিতরণ করেন। পৌর পিতার এমন ভূমিকায় বেজায় খুশি চাটমোহর পৌরবাসী।

এ ব্যাপারে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো যুগান্তরকে বলেন, হাসপাতাল সড়কের যানজট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই মানুষের ক্ষোভ ছিল। কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে রাস্তায় নেমেছি। অচিরেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় ট্রাফিক নিয়োগ দেয়া হবে। পৌরবাসীর সমস্যা নিরসন করাই মেয়রের কাজ বলে জানান তিনি।

রাস্তায় নামলেন মেয়র, নিমেষেই উধাও যানজট!

 চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি 
০৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চাটমোহর পৌর শহরের ব্যস্ততম হাসপাতাল সড়ক। যেখানে প্রতিদিন সকাল হলেই রাস্তার দুই পাশে অটোভ্যান, অটোরিকশায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এতে হাসপাতালে আসা-যাওয়ার রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স থেকে শুরু করে পথচারীরা নানা দুর্ভোগের শিকার হতেন। যে কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভও ছিল প্রচুর।

আর বিষয়টি জানার পর সোমবার সকাল ৮টায় যানজট নিয়ন্ত্রণে নিজেই রাস্তায় নামলেন পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো। কাউন্সিলর পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে নিয়ে কখনও রাস্তার পাশে বসেন, আবার কখনও বা ঘোরাঘুরি করে যানজট নিয়ন্ত্রণ করেন মেয়র। এতে নিমেষেই উধাও যানজট। 

শুধু তাই নয়, যানবাহন রাখার জন্য নির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ করে দেয়াসহ নানা নির্দেশনা দেন মেয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো। আর অস্থায়ী ভিত্তিতে কয়েকজন ব্যক্তিকে রেখে যান যানজট নিরসনে। পরে মেয়র করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে মাস্ক ও হাত ধোয়ার সাবান বিতরণ করেন। পৌর পিতার এমন ভূমিকায় বেজায় খুশি চাটমোহর পৌরবাসী।

এ ব্যাপারে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন সাখো যুগান্তরকে বলেন, হাসপাতাল সড়কের যানজট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই মানুষের ক্ষোভ ছিল। কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে রাস্তায় নেমেছি। অচিরেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় ট্রাফিক নিয়োগ দেয়া হবে। পৌরবাসীর সমস্যা নিরসন করাই মেয়রের কাজ বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন