‘ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল, সেই এ কাজ করিয়েছে’
jugantor
‘ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল, সেই এ কাজ করিয়েছে’

  কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি  

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১৬:৩৭:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মসজিদে আরবি শিখতে আসা ছয় বছরের একটি কন্যা শিশুকে যৌন নিপীড়ন করেছেন ওই মসজিদের মোয়াজ্জিন ও মক্তবের শিক্ষক হাফেজ ইমরান (২৪)। সোমবার সন্ধ্যার আগে এ ঘটনার পর হাফেজ ইমরানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল, সেই এ কাজ করিয়েছে বলে জানান ইমরান।

গ্রেফতারকৃত ইমরান কেশবপুর পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের খোরশেদ গাজীর ছেলে।

কেশবপুর সদর ইউনিয়নের একটি মসজিদে দীর্ঘদিন ধরে মোয়াজ্জিন ও মক্তবের শিক্ষক হাফেজ ইমরান কর্মরত ছিলেন। সোমবার সন্ধ্যার পূর্বে মসজিদে আরবি শিখতে আসা এক শিশু কন্যাকে মসজিদের মধ্যে যৌন নিপীড়ন করে। এরপর শিশুটি বাড়িতে গেলে তার মা দেখতে পায় মেয়ের পাজামায় ছোপ ছোপ দাগ। জানতে চাইলে শিশুটি তার মাকে সব বলে দেয়।

পরে শিশুর বাবা ও এলাকাবাসী ইমরানকে আটক করে একটি গাছে বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে রাত ৮টায় কেশবপুর থানার এসআই তাপস ঘটনাস্থল থেকে হাফেজ ইমরানকে গ্রেফতার করে। পরে কেশবপুর থানায় একটি মামলা হয়।

এসআই তাপস বলেন মামলার আলামত হিসাবে শিশুটির পাজামা জব্দ করা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে ইমরান জানায়, তার ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল। সেই এই কাজ আমাকে দিয়ে করিয়েছে।

‘ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল, সেই এ কাজ করিয়েছে’

 কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি 
০৬ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মসজিদে আরবি শিখতে আসা ছয় বছরের একটি কন্যা শিশুকে যৌন নিপীড়ন করেছেন ওই মসজিদের মোয়াজ্জিন ও মক্তবের শিক্ষক হাফেজ ইমরান (২৪)। সোমবার সন্ধ্যার আগে এ ঘটনার পর হাফেজ ইমরানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল, সেই এ কাজ করিয়েছে বলে জানান ইমরান।

গ্রেফতারকৃত ইমরান কেশবপুর পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের খোরশেদ গাজীর ছেলে।

কেশবপুর সদর ইউনিয়নের একটি মসজিদে দীর্ঘদিন ধরে মোয়াজ্জিন ও মক্তবের শিক্ষক হাফেজ ইমরান কর্মরত ছিলেন। সোমবার সন্ধ্যার পূর্বে মসজিদে আরবি শিখতে আসা এক শিশু কন্যাকে মসজিদের মধ্যে যৌন নিপীড়ন করে। এরপর শিশুটি বাড়িতে গেলে তার মা দেখতে পায় মেয়ের পাজামায় ছোপ ছোপ দাগ। জানতে চাইলে শিশুটি তার মাকে সব বলে দেয়।

পরে শিশুর বাবা ও এলাকাবাসী ইমরানকে আটক করে একটি গাছে বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে রাত ৮টায় কেশবপুর থানার এসআই তাপস ঘটনাস্থল থেকে হাফেজ ইমরানকে গ্রেফতার করে। পরে কেশবপুর থানায় একটি মামলা হয়।

এসআই তাপস বলেন মামলার আলামত হিসাবে শিশুটির পাজামা জব্দ করা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে ইমরান জানায়, তার ঘাড়ে শয়তান লেগেছিল। সেই এই কাজ আমাকে দিয়ে করিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন