কাদের মির্জার অনুসারীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা
jugantor
কাদের মির্জার অনুসারীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১৮:২৭:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানায় নুর হোসেন খান সাহাব (৪০) নামে কাদের মির্জার এক অনুসারীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার রাতে স্থানীয় সাংবাদিক প্রশান্ত সুভাষ চন্দ মামলাটি দায়ের করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি।

নুর হোসেন খান সাহাব উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মৃত নুরনবী কমান্ডারের ছেলে। তিনি কাদের মির্জার অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

ওসি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫(ক)/২৮(১)/২৯/৩১(১) ধারায় আক্রমণাত্মক ভীতি প্রদর্শক তথ্য প্রেরণ, ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত করা, মানহানিকরসহ সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ও শত্রুতা সৃষ্টি করার অপরাধে মামলাটি রুজু করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, আসামি খান সাহাব গত ৪ এপ্রিল রাত ৮টায় নিজের ফেসবুক লাইভে এসে কোম্পানীগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি প্রশান্ত সুভাষ চন্দকে উদ্দেশ করে নানা ধরনের মানহানিকর, আক্রমণাত্মক ও ভীতিকর হুমকিসহ ধর্মীয় মূল্যবোধ ও অনুভূতিতে আঘাত করে অকথ্য ভাষায় মন্তব্য করেন।

সাংবাদিক প্রশান্ত সুভাষ চন্দ বলেন, এই ব্যক্তি কোম্পানীগঞ্জের অসংখ্য সম্মানী ব্যক্তিকে ফেসবুকের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত মানহানিকর বক্তব্য দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় সে আমার বিরুদ্ধেও অসত্য বানোয়াট মন্তব্য করায় আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

কাদের মির্জার অনুসারীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
০৬ এপ্রিল ২০২১, ০৬:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানায় নুর হোসেন খান সাহাব (৪০) নামে কাদের মির্জার এক অনুসারীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার রাতে স্থানীয় সাংবাদিক প্রশান্ত সুভাষ চন্দ মামলাটি দায়ের করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি। 

নুর হোসেন খান সাহাব উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মৃত নুরনবী কমান্ডারের ছেলে। তিনি কাদের মির্জার অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

ওসি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫(ক)/২৮(১)/২৯/৩১(১) ধারায় আক্রমণাত্মক ভীতি প্রদর্শক তথ্য প্রেরণ, ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত করা, মানহানিকরসহ সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ও শত্রুতা সৃষ্টি করার অপরাধে মামলাটি রুজু করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, আসামি খান সাহাব গত ৪ এপ্রিল রাত ৮টায় নিজের ফেসবুক লাইভে এসে কোম্পানীগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি প্রশান্ত সুভাষ চন্দকে উদ্দেশ করে নানা ধরনের মানহানিকর, আক্রমণাত্মক ও ভীতিকর হুমকিসহ ধর্মীয় মূল্যবোধ ও অনুভূতিতে আঘাত করে অকথ্য ভাষায় মন্তব্য করেন।

সাংবাদিক প্রশান্ত সুভাষ চন্দ বলেন, এই ব্যক্তি কোম্পানীগঞ্জের অসংখ্য সম্মানী ব্যক্তিকে ফেসবুকের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত মানহানিকর বক্তব্য দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় সে আমার বিরুদ্ধেও অসত্য বানোয়াট মন্তব্য করায় আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আবদুল কাদের মির্জা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন