অবশেষে নিজ ঘরে ঠাঁই মিলল শতবর্ষী বৃদ্ধার
jugantor
অবশেষে নিজ ঘরে ঠাঁই মিলল শতবর্ষী বৃদ্ধার

  মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৮ এপ্রিল ২০২১, ২২:১২:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ছেলে ও ছেলের বউয়ের নির্যাতনে ঘরছাড়া শতবর্ষী বৃদ্ধা পুলিশ সুপারের সহায়তায় নিজ ঘরে ঠাঁই পেলেন। একই সঙ্গে পুলিশ সুপারের নতুন কাপড়-চোপড় ও খাদ্যসামগ্রীও পেলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় এক যুবক ফেসবুকে নির্যাতিত বৃদ্ধার মানবেতর জীবন নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেটি হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহর (বিপিএম,পিপিএম) দৃষ্টিগোচর হলে তাৎক্ষণিক মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাককে বৃদ্ধার পরিচয় নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেন। ওসি পুলিশ সুপারের নির্দেশ পেয়ে খোঁজে বের করেন ওই বৃদ্ধাকে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের রিয়াজনগর গ্রামে গিয়ে বৃদ্ধাকে তার ছেলের ঘরে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় পুলিশের দেওয়া উপহার শাড়ি ও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। এ সময় বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটে উঠে।

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, ওই মহিলার নাম মাবিয়া খাতুন। তার স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি একমাত্র ছেলের সঙ্গে বসবাস করতেন। কিন্তু ছেলের স্ত্রী ওই বৃদ্ধার সঙ্গে খারাপ আচরণ করতেন। প্রায় সময়ই অনাহারে অর্ধাহারে কাটত ওই বৃদ্ধার।

কয়েক দিন আগে ছেলের বউ ওই বৃদ্ধাকে ঘর থেকে বের করে দেয়। তখন বৃদ্ধা বাড়ির পাশে একটি গাছতলায় আশ্রয় নেন। বৃদ্ধার ওই মানবেতর জীবন নিয়ে এলাকার এসএইচ উজ্জল নামে এক যুবক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট করলে পোস্টটি হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহর দৃষ্টিগোচর হয়।

পরে রিয়াজনগর গ্রামে গিয়ে ওই মহিলাকে ছেলের ঘরে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় ছেলের বউ অঙ্গীকার করেন তার শাশুড়িকে আর কোনোদিন অবহেলা ও নির্যাতন করবে না। এ সময় বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটে উঠে।

অবশেষে নিজ ঘরে ঠাঁই মিলল শতবর্ষী বৃদ্ধার

 মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৮ এপ্রিল ২০২১, ১০:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ছেলে  ও ছেলের বউয়ের নির্যাতনে ঘরছাড়া শতবর্ষী বৃদ্ধা পুলিশ সুপারের সহায়তায় নিজ ঘরে ঠাঁই পেলেন। একই সঙ্গে পুলিশ সুপারের নতুন কাপড়-চোপড় ও খাদ্যসামগ্রীও পেলেন তিনি। 

বৃহস্পতিবার স্থানীয় এক যুবক ফেসবুকে নির্যাতিত বৃদ্ধার মানবেতর জীবন নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেটি হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহর (বিপিএম,পিপিএম) দৃষ্টিগোচর হলে তাৎক্ষণিক মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাককে বৃদ্ধার পরিচয় নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেন। ওসি পুলিশ সুপারের নির্দেশ পেয়ে খোঁজে বের করেন ওই বৃদ্ধাকে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাঘাসুরা ইউনিয়নের রিয়াজনগর গ্রামে গিয়ে বৃদ্ধাকে তার ছেলের ঘরে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় পুলিশের দেওয়া উপহার শাড়ি ও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়। এ সময় বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটে উঠে। 

মাধবপুর থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, ওই মহিলার নাম মাবিয়া খাতুন। তার স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি একমাত্র ছেলের সঙ্গে বসবাস করতেন। কিন্তু ছেলের স্ত্রী ওই বৃদ্ধার সঙ্গে খারাপ আচরণ করতেন। প্রায় সময়ই অনাহারে অর্ধাহারে কাটত ওই বৃদ্ধার। 

কয়েক দিন আগে ছেলের বউ ওই বৃদ্ধাকে ঘর থেকে বের করে দেয়। তখন বৃদ্ধা বাড়ির পাশে একটি গাছতলায় আশ্রয় নেন। বৃদ্ধার ওই মানবেতর জীবন নিয়ে এলাকার এসএইচ উজ্জল নামে এক যুবক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট করলে পোস্টটি হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহর দৃষ্টিগোচর হয়। 

পরে রিয়াজনগর গ্রামে গিয়ে ওই মহিলাকে ছেলের ঘরে তুলে দেওয়া হয়। এ সময় ছেলের বউ অঙ্গীকার করেন তার শাশুড়িকে আর কোনোদিন অবহেলা ও নির্যাতন করবে না। এ সময় বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটে উঠে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন