মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে রিকশাচালকের আত্মহত্যা
jugantor
মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে রিকশাচালকের আত্মহত্যা

  সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১০ এপ্রিল ২০২১, ১৫:৫৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে এক রিকশাচালক আত্মহত্যা করেছেন।

শুক্রবার রাতে উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন জামাল।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সিনার্জি বাগানে জামালের বাড়ি। তিনি শারিরীক প্রতিবন্ধী হলোব্যাটারিচালিত রিকশা চালিয়ে সংসার চালাতেন। দুই মাস আগে তার এক মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। যৌতুক নিয়ে মেয়ের শশুরবাড়ির লোকজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না।

এক পর্যায়ে পরিবারের মধ্যে অশান্তি নেমে আসে। তারই জের ধরে শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় আত্মহত্যা করেন তিনি।

সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক যুগান্তরকে বলেন, মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর সম্প্রতি শশুরবাড়ির লোকজন যৌতুকের টাকা দাবি করছিলেন। পাশাপাশি ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা রয়েছে। সেই মামলার হাজিরা দেওয়ার টাকা জোগাড়ে হিমশিম খাচ্ছিলেন। পরিবারের কাছে টাকা চেয়েও পাননি। এজন্য হয় তো আত্মহত্যা করেছেন।

মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে রিকশাচালকের আত্মহত্যা

 সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১০ এপ্রিল ২০২১, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে মেয়ের বিয়ের যৌতুকের টাকা জোগাড় করতে না পেরে এক রিকশাচালক আত্মহত্যা করেছেন।  

শুক্রবার রাতে উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন জামাল। 

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সিনার্জি বাগানে জামালের বাড়ি। তিনি শারিরীক প্রতিবন্ধী হলো ব্যাটারিচালিত রিকশা চালিয়ে সংসার চালাতেন। দুই মাস আগে তার এক মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। যৌতুক নিয়ে মেয়ের শশুরবাড়ির লোকজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। 

এক পর্যায়ে পরিবারের মধ্যে অশান্তি নেমে আসে। তারই জের ধরে শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় আত্মহত্যা করেন তিনি। 

সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক যুগান্তরকে বলেন, মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর সম্প্রতি শশুরবাড়ির লোকজন যৌতুকের টাকা দাবি করছিলেন। পাশাপাশি ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা রয়েছে। সেই মামলার হাজিরা দেওয়ার টাকা জোগাড়ে হিমশিম খাচ্ছিলেন। পরিবারের কাছে টাকা চেয়েও পাননি। এজন্য হয় তো আত্মহত্যা করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন