তুচ্ছ ঘটনায় বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যা
jugantor
তুচ্ছ ঘটনায় বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

  সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১২ এপ্রিল ২০২১, ২১:৩৩:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মো.ইসহাক (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে ছোট ভাই-ভাতিজারা মিলে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে গুরুতর আহত হয়েছে জয়নালের স্ত্রী কোহিনুর বেগম (৪৫)।

সোমবার বিকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত ইসহাক বাড়বকুণ্ড বাজারের আমন্ত্রণ রেস্তোরার মালিক।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.আওরঙ্গজেব বলেন, সোমবার দুপুরে সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের দিঘীরনামা এলাকার নতুন তেলি বাড়িতে রান্না ঘরের সীমানা খুঁটি পাল্টানো নিয়ে আলন সওদাগরের পুত্র ইসহাক ও তার ছোট ভাই ইব্রাহিমের মধ্যে কথা কাটাকাটির শুরু হয়। এক পর্যায়ে ইব্রাহিম ও তার স্ত্রী-ছেলেরা লাঠি দিয়ে ইসহাককে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

এ সময় ইসহাকের স্ত্রী ছুটে এলে তাকেও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। এ ঘটনার পর স্থানীয়রা আহত ইসহাক ও তার স্ত্রী কোহিনুর বেগমকে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু আহত দুজনের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে ইসহাকের মৃত্যু হয়।

নিহত জয়নালের ছেলে সাকিব বলেন, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমার চাচা ইব্রাহিম ও তার স্ত্রী-ছেলেরা গাছের লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করে আমার বাবা-মাকে গুরুতর আহত করে। ঘটনার পর চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার বাবার মৃত্যু হয়েছে। মায়েরও শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া শেষে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবো।

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক বলেন, বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যার বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। অভিযোগের আলোকে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তুচ্ছ ঘটনায় বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

 সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১২ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মো.ইসহাক (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে ছোট ভাই-ভাতিজারা মিলে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে গুরুতর আহত হয়েছে জয়নালের স্ত্রী কোহিনুর বেগম (৪৫)।

সোমবার বিকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত ইসহাক বাড়বকুণ্ড বাজারের আমন্ত্রণ রেস্তোরার মালিক।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.আওরঙ্গজেব বলেন, সোমবার দুপুরে সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের দিঘীরনামা এলাকার নতুন তেলি বাড়িতে রান্না ঘরের সীমানা খুঁটি পাল্টানো নিয়ে আলন সওদাগরের পুত্র ইসহাক ও তার ছোট ভাই ইব্রাহিমের মধ্যে কথা কাটাকাটির শুরু হয়। এক পর্যায়ে ইব্রাহিম ও তার স্ত্রী-ছেলেরা লাঠি দিয়ে ইসহাককে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

এ সময় ইসহাকের স্ত্রী ছুটে এলে তাকেও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন। এ ঘটনার পর স্থানীয়রা আহত ইসহাক ও তার স্ত্রী কোহিনুর বেগমকে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু আহত দুজনের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে ইসহাকের মৃত্যু হয়।

নিহত জয়নালের ছেলে সাকিব বলেন, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমার চাচা ইব্রাহিম ও তার স্ত্রী-ছেলেরা গাছের লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করে আমার বাবা-মাকে গুরুতর আহত করে। ঘটনার পর চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার বাবার মৃত্যু হয়েছে। মায়েরও শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া শেষে  ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবো।

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক বলেন, বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যার বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। অভিযোগের আলোকে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন