থানায় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা
jugantor
থানায় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা

  কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:৫৭:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

থানায় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন উপপরিদর্শক (এসআই) রোকনুজ্জামান (২৫)।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে কাশিয়ানী থানা কোয়ার্টারের সিঁড়ির রেলিংয়ের রডের সঙ্গে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত এসআই রোকনুজ্জামান রাজবাড়ির পাংশা উপজেলার দীঘলহাটি গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, ভোরে সহকর্মী এসআই নুরুল আনোয়ার নামাজ পড়ার জন্য ঘুম থেকে উঠে দেখেন কোয়ার্টারের সিঁড়ির রেলিংয়ের রডের সঙ্গে রোকনুজ্জামানের মরদেহ ঝুলছে।

পরে বিষয়টি তিনি থানার সবাইকে জানান। মরদেহ উদ্ধার করে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি বলেও জানিয়েছেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

থানায় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা

 কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
থানায় পুলিশ কর্মকর্তার আত্মহত্যা
ছবি: যুগান্তর

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন  উপপরিদর্শক (এসআই) রোকনুজ্জামান (২৫)।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে কাশিয়ানী থানা কোয়ার্টারের সিঁড়ির রেলিংয়ের রডের সঙ্গে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত এসআই রোকনুজ্জামান রাজবাড়ির পাংশা উপজেলার দীঘলহাটি গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে।

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, ভোরে সহকর্মী এসআই নুরুল আনোয়ার নামাজ পড়ার জন্য ঘুম থেকে উঠে দেখেন কোয়ার্টারের সিঁড়ির রেলিংয়ের রডের সঙ্গে রোকনুজ্জামানের মরদেহ ঝুলছে।

পরে বিষয়টি তিনি থানার সবাইকে জানান। মরদেহ উদ্ধার করে কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি বলেও জানিয়েছেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন