অভিনব কায়দায় চুরি, ৯ নারী গ্রেফতার
jugantor
অভিনব কায়দায় চুরি, ৯ নারী গ্রেফতার

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ২২:২০:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামে নির্মাণাধীন ভবনে জিনিসপত্র চুরিতে জড়িত চক্রের ৯ নারী সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার ভোরে কোতোয়ালি থানার ফিরিঙ্গিবাজার এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে তাদের হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- হেলেনা বেগম (২৮), রোকসানা বেগম (২৮), শাহীনুর বেগম (২৫), পারভীন আক্তার (২৬), বিবি ফাতেমা (৩০), রেনু বেগম (৩০), মরিয়ম বেগম (৪৫), বিবি রহিমা (৩৫) ও পারভীন বেগম (২৮)।

পুলিশ জানায়, ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় এনামুল হকের নির্মণাধীন একটি ভবন থেকে কয়েক দফায় ৩৩ বান্ডিল বা ৩শ' কেজি বৈদ্যুতিক তার চুরি হয়। এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগও দেন ভবন মালিক। পরে ভবনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়। বুধবার ভোরে নারী চোরচক্রের সদস্যরা চুরি করতে গেলে তাদের হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

গ্রেফতার নয়জনই পেশাদার চোর চক্রের সদস্য। তারা নির্মাণাধীন ভবনে গিয়ে গল্পগুজবের ফাঁকে বিভিন্ন মালামাল বিশেষ করে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, ফিটিংসসহ মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে। এ সময় তাদের কেউ অন্যান্য শ্রমিকদের সঙ্গে গল্পগুজব করে। আবার কেউ পানের বাটা খুলে পান খাওয়ার ভান করে সবাইকে ব্যস্ত করে রাখে।

ভবনের কেয়ারটেকার কিংবা অন্যদের ব্যস্ত রাখার সুযোগে তাদের কেউ কেউ ভবনের অন্যান্য তলায় গিয়ে কোথায় কী আছে সেটা দেখে নেয়। আবার সুযোগ পেলে মালামাল চুরি করে নেয়।

কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন জানান, সংঘবদ্ধ নারী চোর চক্রের নয় সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে চালান দেয়া হয়েছে। অভিনব কায়দায় নগরজুড়ে এই চোর চক্র নির্মাণাধীণ ভবনে জিনিসপত্র চুরি করে আসছিল।

অভিনব কায়দায় চুরি, ৯ নারী গ্রেফতার

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামে নির্মাণাধীন ভবনে জিনিসপত্র চুরিতে জড়িত চক্রের ৯ নারী সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার ভোরে কোতোয়ালি থানার ফিরিঙ্গিবাজার এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে তাদের হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- হেলেনা বেগম (২৮), রোকসানা বেগম (২৮), শাহীনুর বেগম (২৫), পারভীন আক্তার (২৬), বিবি ফাতেমা (৩০), রেনু বেগম (৩০), মরিয়ম বেগম (৪৫), বিবি রহিমা (৩৫) ও পারভীন বেগম (২৮)।

পুলিশ জানায়, ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় এনামুল হকের নির্মণাধীন একটি ভবন থেকে কয়েক দফায় ৩৩ বান্ডিল বা ৩শ' কেজি বৈদ্যুতিক তার চুরি হয়। এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগও দেন ভবন মালিক। পরে ভবনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়। বুধবার ভোরে নারী চোরচক্রের সদস্যরা চুরি করতে গেলে তাদের হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

গ্রেফতার নয়জনই পেশাদার চোর চক্রের সদস্য। তারা নির্মাণাধীন ভবনে গিয়ে গল্পগুজবের ফাঁকে বিভিন্ন মালামাল বিশেষ করে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, ফিটিংসসহ মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে। এ সময় তাদের কেউ অন্যান্য শ্রমিকদের সঙ্গে গল্পগুজব করে। আবার কেউ পানের বাটা খুলে পান খাওয়ার ভান করে সবাইকে ব্যস্ত করে রাখে।

ভবনের কেয়ারটেকার কিংবা অন্যদের ব্যস্ত রাখার সুযোগে তাদের কেউ কেউ ভবনের অন্যান্য তলায় গিয়ে কোথায় কী আছে সেটা দেখে নেয়। আবার সুযোগ পেলে মালামাল চুরি করে নেয়।

কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন জানান, সংঘবদ্ধ নারী চোর চক্রের নয় সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে চালান দেয়া হয়েছে। অভিনব কায়দায় নগরজুড়ে এই চোর চক্র নির্মাণাধীণ ভবনে জিনিসপত্র চুরি করে আসছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন