কাদের মির্জার স্ট্যাটাসে তোলপাড়, সংঘর্ষে ছেলে জখম
jugantor
কাদের মির্জার স্ট্যাটাসে তোলপাড়, সংঘর্ষে ছেলে জখম

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ২২:২৯:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাস ভাইরাল হয়ে গেছে। এতে তোলপাড় শুরু হয়েছে দেশব্যাপী। অনেকে বিরূপ মন্তব্য করছেন।

এ স্ট্যাটার দেওয়ার পর নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জা ও প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মেয়রপুত্র তাশিকসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ থানার সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর বসুরহাটে উত্তেজনা ও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকাল পৌনে ৪টার দিকে ফেসবুকে স্ট্যাটাসের বিরুদ্ধে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়ে কাদের মির্জার কয়েক অনুসারীর বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে থানায় যান। এ সময় থানা থেকে তারা কাদের মির্জার বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে বসুরহাট পৌরসভা ভবনের দিকে যেতে চাইলে পুলিশের বাধার মুখে তারা ফেরত এসে উপজেলায় অবস্থান করেন।

এর কিছুক্ষণ পর মেয়র কাদের মির্জার পুত্র তাশিক মির্জার নেতৃত্বে তার অনুসারীরা থানার সামনে ব্রিজের ওপর আসলে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। এতে তাশিক মির্জাসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান বাদল দাবি করেন, কাদের মির্জা গ্রুপের হামলায় তাদের সাতজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তারা হচ্ছেন- সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগিনা হুমায়ুন রশিদ মিরাজ, যুবলীগ নেতা আরমান চৌধুরী, নজরুল ইসলাম হিমেল, ছাত্রলীগ নেতা আদনান পাশা জয়, ওমর ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বাহাদুর। তাদের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে মেয়রের অনুসারীদের মধ্যে জেলা ছাত্রলীগ নেতা মেয়রপুত্র মির্জা মাশরুর কাদের তাশিক, পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল আহমেদ জিসান ও চরপার্বতী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন আহত হয়েছেন। তাদেরও বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি বলেন, সংঘর্ষ এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কাদের মির্জার স্ট্যাটাসে তোলপাড়, সংঘর্ষে ছেলে জখম

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাস ভাইরাল হয়ে গেছে। এতে তোলপাড় শুরু হয়েছে দেশব্যাপী। অনেকে বিরূপ মন্তব্য করছেন।

এ স্ট্যাটার দেওয়ার পর নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জা ও প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মেয়রপুত্র তাশিকসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ থানার সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর বসুরহাটে উত্তেজনা ও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকাল পৌনে ৪টার দিকে ফেসবুকে স্ট্যাটাসের বিরুদ্ধে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়ে কাদের মির্জার কয়েক অনুসারীর বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে থানায় যান। এ সময় থানা থেকে তারা কাদের মির্জার বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে বসুরহাট পৌরসভা ভবনের দিকে যেতে চাইলে পুলিশের বাধার মুখে তারা ফেরত এসে উপজেলায় অবস্থান করেন।

এর কিছুক্ষণ পর মেয়র কাদের মির্জার পুত্র তাশিক মির্জার নেতৃত্বে তার অনুসারীরা থানার সামনে ব্রিজের ওপর আসলে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। এতে তাশিক মির্জাসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান বাদল দাবি করেন, কাদের মির্জা গ্রুপের হামলায় তাদের সাতজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তারা হচ্ছেন- সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগিনা হুমায়ুন রশিদ মিরাজ, যুবলীগ নেতা আরমান চৌধুরী, নজরুল ইসলাম হিমেল, ছাত্রলীগ নেতা আদনান পাশা জয়, ওমর ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বাহাদুর। তাদের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

অপরদিকে মেয়রের অনুসারীদের মধ্যে জেলা ছাত্রলীগ নেতা মেয়রপুত্র মির্জা মাশরুর কাদের তাশিক, পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল আহমেদ জিসান ও চরপার্বতী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন আহত হয়েছেন। তাদেরও বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি বলেন, সংঘর্ষ এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আবদুল কাদের মির্জা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন