বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ-গর্ভপাত
jugantor
বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ-গর্ভপাত

  বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ২৩:০০:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বানারীপাড়ায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ ও কোল্ড ড্রিংসের সঙ্গে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার একমাত্র আসামি প্রেমিক হাসিবুল হাওলাদারকে (১৯) গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার জিরাকাঠী এলাকা থেকে হাসিবুল হাওলাদারকে গ্রেফতার করেন। বুধবার সকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। একই সঙ্গে ওই ছাত্রীকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে বলে লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইর যুগান্তরকে জানান।

এ ব্যাপারে মামলা ও ভিকটিমের পরিবারসহ একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জিরাকাঠী এলাকার মো. হাসিবুল হাওলাদার (১৯) দীর্ঘ দিন ধরে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৬) তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল। ফলে ভিকটিম ৪ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এ খবর জানতে পেরে সম্প্রতি হাসিবুল তার প্রেমিকাকে কোল্ড ড্রিংকসের সঙ্গে গর্ভপাতের ওষুধ খাইয়ে পেটের বাচ্চা নষ্ট করে দেয়।

এ সময় রক্তক্ষরণ হলেও লোকলজ্জার ভয়ে মুখ খুলতে পারেনি ওই ছাত্রী ও তার পরিবার। পরে ১১ এপ্রিল রাত ১১টার দিকে প্রেমিক হাসিবুল ওই ছাত্রীর মোবাইলে ফোন করে তার ঘরের দরজা খুলতে বলে। দরজা খুলে দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসিবুল তার বেডরুমে ঢুকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ওই ছাত্রীর চিৎকার শুনে তার মা ঘটনাস্থলে গেলে হাসিবুল সেখান থেকে দ্রুত সটকে পড়ে। পরে বিয়ে করার কথা বললে হাসিবুল তা অস্বীকার করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার ওই ছাত্রী বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

বানারীপাড়া থানার ওসি মো. হেলাল উদ্দিন মামলাটি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইরকে নির্দেশ দেন।

বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ-গর্ভপাত

 বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ১১:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বানারীপাড়ায় বিয়ের আশ্বাস দিয়ে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ ও কোল্ড ড্রিংসের সঙ্গে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার একমাত্র আসামি প্রেমিক হাসিবুল হাওলাদারকে (১৯) গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার জিরাকাঠী এলাকা থেকে হাসিবুল হাওলাদারকে গ্রেফতার করেন। বুধবার সকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। একই সঙ্গে ওই ছাত্রীকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে বলে লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইর যুগান্তরকে জানান।

এ ব্যাপারে মামলা ও ভিকটিমের পরিবারসহ একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জিরাকাঠী এলাকার মো. হাসিবুল হাওলাদার (১৯) দীর্ঘ দিন ধরে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৬) তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছিল। ফলে ভিকটিম ৪ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এ খবর জানতে পেরে সম্প্রতি হাসিবুল তার প্রেমিকাকে কোল্ড ড্রিংকসের সঙ্গে গর্ভপাতের ওষুধ খাইয়ে পেটের বাচ্চা নষ্ট করে দেয়।

এ সময় রক্তক্ষরণ হলেও লোকলজ্জার ভয়ে মুখ খুলতে পারেনি ওই ছাত্রী ও তার পরিবার। পরে ১১ এপ্রিল রাত ১১টার দিকে প্রেমিক হাসিবুল ওই ছাত্রীর মোবাইলে ফোন করে তার ঘরের দরজা খুলতে বলে। দরজা খুলে দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসিবুল তার বেডরুমে ঢুকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ওই ছাত্রীর চিৎকার শুনে তার মা ঘটনাস্থলে গেলে হাসিবুল সেখান থেকে দ্রুত সটকে পড়ে। পরে বিয়ে করার কথা বললে হাসিবুল তা অস্বীকার করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার ওই ছাত্রী বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

বানারীপাড়া থানার ওসি মো. হেলাল উদ্দিন মামলাটি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য লবণসাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মো. জুবাইরকে নির্দেশ দেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন