আমি এখন বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ: কাদের মির্জা
jugantor
আমি এখন বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ: কাদের মির্জা

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৬ এপ্রিল ২০২১, ২১:০৩:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মেয়র আবদুল কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা অভিযোগ করে বলেছেন, আমি এখন বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ। এখানে একরামের লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসী, পুলিশ, এএসপি সার্কেল শামীমের নেতৃত্বে আমার পৌরসভা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। পৌরসভায় কোনো মানুষকে ঢুকতে দিচ্ছে না। সবাইকে পুলিশ বাধা দিচ্ছে।

শুক্রবার বিকালে তার অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে কাদের মির্জা এসব কথা বলেন।

কাদের মির্জা বলেন, বৃহস্পতিবার আমার ছেলেটাকে মারা হলো, আমার পৌরসভায় আক্রমণ হলো, উল্টো আমার ছেলেদের গ্রেফতার করছে পুলিশ। এ ঘটনায় আমার ২৫ জন ছেলে আহত হয়েছেন। আহত হওয়ার ঘটনায় তারা অভিযোগ দায়ের করতে গেলে ওসি মীর জাহেদুল হক রনি আমাদের অভিযোগ গ্রহণ করেননি। অথচ সন্ত্রাসী খুনি বাদল বাহিনীর অভিযোগ গ্রহণ করেছেন এবং আমার নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে পুলিশ।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকালে কাদের মির্জা ও তার প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের অনুসারীদের সংঘর্ষে মেয়রপুত্র তাশিক মির্জা এবং অপরপক্ষে মন্ত্রীর ভাগিনা মিরাজসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। অন্যদিকে মির্জা কাদেরের অনুসারীরা বসুরহাট বাসস্ট্যান্ডে হামলা চালিয়ে বাদল অনুসারী জেলা পরিষদ সদস্য সবুজ চৌধুরীর মালিকানাধীন তিনটি ড্রিমলাইন বাস ও অফিস কক্ষ ভাংচুর করে।

আমি এখন বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ: কাদের মির্জা

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মেয়র আবদুল কাদের মির্জা
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা অভিযোগ করে বলেছেন, আমি এখন বসুরহাট পৌরসভায় অবরুদ্ধ। এখানে একরামের লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসী, পুলিশ, এএসপি সার্কেল শামীমের নেতৃত্বে আমার পৌরসভা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। পৌরসভায় কোনো মানুষকে ঢুকতে দিচ্ছে না। সবাইকে পুলিশ বাধা দিচ্ছে।

শুক্রবার বিকালে তার অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে কাদের মির্জা এসব কথা বলেন।

কাদের মির্জা বলেন, বৃহস্পতিবার আমার ছেলেটাকে মারা হলো, আমার পৌরসভায় আক্রমণ হলো, উল্টো আমার ছেলেদের গ্রেফতার করছে পুলিশ। এ ঘটনায় আমার ২৫ জন ছেলে আহত হয়েছেন। আহত হওয়ার ঘটনায় তারা অভিযোগ দায়ের করতে গেলে ওসি মীর জাহেদুল হক রনি আমাদের অভিযোগ গ্রহণ করেননি। অথচ সন্ত্রাসী খুনি বাদল বাহিনীর অভিযোগ গ্রহণ করেছেন এবং আমার নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে পুলিশ। 

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকালে কাদের মির্জা ও তার প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের অনুসারীদের সংঘর্ষে মেয়রপুত্র তাশিক মির্জা এবং অপরপক্ষে মন্ত্রীর ভাগিনা মিরাজসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। অন্যদিকে মির্জা কাদেরের অনুসারীরা বসুরহাট বাসস্ট্যান্ডে হামলা চালিয়ে বাদল অনুসারী জেলা পরিষদ সদস্য সবুজ চৌধুরীর মালিকানাধীন তিনটি ড্রিমলাইন বাস ও অফিস কক্ষ ভাংচুর করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আবদুল কাদের মির্জা

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন