বোমা বিস্ফোরণে স্কুলছাত্র নিহত, যুবলীগ নেতার রিমান্ড
jugantor
বোমা বিস্ফোরণে স্কুলছাত্র নিহত, যুবলীগ নেতার রিমান্ড

  যশোর ব্যুরো ও কেশবপুর প্রতিনিধি  

১৬ এপ্রিল ২০২১, ২২:৩৮:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের কেশবপুরে কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে স্কুলছাত্র আব্দুর রহমান নিহতের মামলায় যুবলীগ নেতা ফারুক হোসেনকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুক্রবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ফারুক হোসেন কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে কেশবপুর বাউশালা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে আব্দুর রহমান তার ছোটবোন মারুফাকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির পাশে বিলের মধ্যে খেলা করতে যায়। বিলের মধ্যে পরিত্যক্ত একটি টংঘরের মধ্যে পলিথিনে মোড়ানো একটি কৌটা পেয়ে তারা হাতে করে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেয়। পথিমধ্যে মসজিদের কাছে আসার পরে তার মা নিলুফা বেগমকে কৌটাটি দেখানোর সময় বিস্ফোরণ ঘটে।

ঘটনাস্থলেই আব্দুর রহমান মারা যায়। একই সাথে গুরুতর আহত হন তার মা নিলুফা বেগম ও বোন মারুফা খাতুন। সঙ্গে সঙ্গে তাদের দুইজনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান স্থানীয়রা।

এ ঘটনায় নিহত আব্দুর রহমানের চাচা সিরাজুল ইসলাম বৃহস্পতিবার রাতে কেশবপুর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে মামলা করেন। পুলিশ সন্দেহমূলক বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেনকে আটকের পর শুক্রবারে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে। শুনানি শেষে বিচারক ফারুক হোসেনকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

বোমা বিস্ফোরণে স্কুলছাত্র নিহত, যুবলীগ নেতার রিমান্ড

 যশোর ব্যুরো ও কেশবপুর প্রতিনিধি 
১৬ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের কেশবপুরে কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে স্কুলছাত্র আব্দুর রহমান নিহতের মামলায় যুবলীগ নেতা ফারুক হোসেনকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুক্রবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ফারুক হোসেন কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে কেশবপুর বাউশালা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে আব্দুর রহমান তার ছোটবোন মারুফাকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির পাশে বিলের মধ্যে খেলা করতে যায়। বিলের মধ্যে পরিত্যক্ত একটি টংঘরের মধ্যে পলিথিনে মোড়ানো একটি কৌটা পেয়ে তারা হাতে করে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেয়। পথিমধ্যে মসজিদের কাছে আসার পরে তার মা নিলুফা বেগমকে কৌটাটি দেখানোর সময় বিস্ফোরণ ঘটে।

ঘটনাস্থলেই আব্দুর রহমান মারা যায়। একই সাথে গুরুতর আহত হন তার মা নিলুফা বেগম ও বোন মারুফা খাতুন। সঙ্গে সঙ্গে তাদের দুইজনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান স্থানীয়রা।

এ ঘটনায় নিহত আব্দুর রহমানের চাচা সিরাজুল ইসলাম বৃহস্পতিবার রাতে কেশবপুর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে মামলা করেন। পুলিশ সন্দেহমূলক বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেনকে আটকের পর শুক্রবারে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে। শুনানি শেষে বিচারক ফারুক হোসেনকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন