মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা করলেন মা
jugantor
মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা করলেন মা

  শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি  

১৮ এপ্রিল ২০২১, ১৯:১৯:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাটের শরণখোলায় সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে নিজ মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির বাবুলের স্ত্রী হেনা কবির।

অপরদিকে পিতার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন হেনা কবিরের মেয়ে মামলার আসামি সাদিয়া সুলতানা বিথী।

রোববার সকাল ১০টায় শরণখোলা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সাদিয়া সুলতানা বিথী জানান, পিতার মৃত্যুর পরে তারা দুই বোন তানিয়া আক্তার সাথী ও তিনি হেবা দলিল অনুযায়ী পাঁচ রাস্তার মোড়ে বাবুল সুপার মার্কেটের দোকান ভাড়া দিয়ে ভোগদখল করে আসছেন। কিন্তু একটি স্বার্থান্বেষী মহল ও তার বোনজামাই মঞ্জুরুল ইসলাম মার্কেটটি এককভাবে দখল করতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালায়।

তিনি জানান, এ কারণে তিনি একটি মামলা করলে আদালত মার্কেটের উভয়পক্ষকে স্থিতি অবস্থায় বজায় রাখার নির্দেশ দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে স্বার্থান্বেষীদের ইন্ধনে ১৩ এপ্রিল তার দুই ভাড়াটিয়ার দোকানে হামলা ও লুটপাট চালায় সন্ত্রাসীরা। এ ব্যাপারে তার ভাড়াটিয়া ওই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

তিনি আরও জানান, পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি করে আমার মা হেনা কবিরকে দিয়ে আমিসহ ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে পাল্টা একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন তারা। পিতার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে স্বার্থান্বেষী মহলটির এহেন হামলা, মিথ্যা মামলা ও ষড়যন্ত্রে দিশাহারা তিনি।

এ ব্যাপারে হেনা কবির জানান, তার বড় জামাইয়ের টাকা দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে। তাই ওই মার্কেট বড় মেয়ে সাথীকে দিয়ে ছোট মেয়ে বিথীকে অন্য জায়গার জমি দিলেও সে রাজি না হওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

মেয়ের বিরুদ্ধে মামলা করলেন মা

 শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি 
১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৭:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাটের শরণখোলায় সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে নিজ মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির বাবুলের স্ত্রী হেনা কবির।

অপরদিকে পিতার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন হেনা কবিরের মেয়ে মামলার আসামি সাদিয়া সুলতানা বিথী।

রোববার সকাল ১০টায় শরণখোলা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সাদিয়া সুলতানা বিথী জানান, পিতার মৃত্যুর পরে তারা দুই বোন তানিয়া আক্তার সাথী ও তিনি হেবা দলিল অনুযায়ী পাঁচ রাস্তার মোড়ে বাবুল সুপার মার্কেটের দোকান ভাড়া দিয়ে ভোগদখল করে আসছেন। কিন্তু একটি স্বার্থান্বেষী মহল ও তার বোনজামাই মঞ্জুরুল ইসলাম মার্কেটটি এককভাবে দখল করতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালায়।

তিনি জানান, এ কারণে তিনি একটি মামলা করলে আদালত মার্কেটের উভয়পক্ষকে স্থিতি অবস্থায় বজায় রাখার নির্দেশ দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে স্বার্থান্বেষীদের ইন্ধনে ১৩ এপ্রিল তার দুই ভাড়াটিয়ার দোকানে হামলা ও লুটপাট চালায় সন্ত্রাসীরা। এ ব্যাপারে তার ভাড়াটিয়া ওই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

তিনি আরও জানান, পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি করে আমার মা হেনা কবিরকে দিয়ে আমিসহ ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে পাল্টা একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন তারা। পিতার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে স্বার্থান্বেষী মহলটির এহেন হামলা, মিথ্যা মামলা ও ষড়যন্ত্রে দিশাহারা তিনি।

এ ব্যাপারে হেনা কবির জানান, তার বড় জামাইয়ের টাকা দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে। তাই ওই মার্কেট বড় মেয়ে সাথীকে দিয়ে ছোট মেয়ে বিথীকে অন্য জায়গার জমি দিলেও সে রাজি না হওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন