রায়গঞ্জে পৌর কাউন্সিলরের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা
jugantor
রায়গঞ্জে পৌর কাউন্সিলরের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা

  রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৮ এপ্রিল ২০২১, ১৯:৩১:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে পৌর আওয়ামী লীগ নেতা ও ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা, মারপিট, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাত ৯টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত বাড়িতে ঢুকে এলাপাতাড়ি ভাংচুর, মারপিট ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়ে ঘরের মধ্যে থাকা আসবাবপত্রে অগ্নিসংযোগ করে চলে যায়।

খবর পেয়ে ষোলমাইল ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় মারপিটে গুরুতর আহত কাউন্সিলরের স্ত্রী মোছা. শামছুন্নাহারকে রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সুলতান মাহমুদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। সিরাজগঞ্জ থেকে এসে দীর্ঘদিন যাবৎ রায়গঞ্জ পৌর এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছি এবং দ্বিতীয়বারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছি।

তিনি জানান, গত বৃহস্পতিবার একদল সন্ত্রাসী আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় খবর পেলাম আমার বাড়িতে হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ হয়েছে। এছাড়া মারপিট করে আমার স্ত্রীকে গুরতর আহত করেছে।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র আব্দুল্লাহ আল-পাঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

এ বিষয়ে রায়গঞ্জ থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. বাবুল আক্তার এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তদন্তপূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

রায়গঞ্জে পৌর কাউন্সিলরের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা

 রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে পৌর আওয়ামী লীগ নেতা ও ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা, মারপিট, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাত ৯টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত বাড়িতে ঢুকে এলাপাতাড়ি ভাংচুর, মারপিট ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়ে ঘরের মধ্যে থাকা আসবাবপত্রে অগ্নিসংযোগ করে চলে যায়।

খবর পেয়ে ষোলমাইল ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় মারপিটে গুরুতর আহত কাউন্সিলরের স্ত্রী মোছা. শামছুন্নাহারকে রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সুলতান মাহমুদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। সিরাজগঞ্জ থেকে এসে দীর্ঘদিন যাবৎ রায়গঞ্জ পৌর এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছি এবং দ্বিতীয়বারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছি।

তিনি জানান, গত বৃহস্পতিবার একদল সন্ত্রাসী আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় খবর পেলাম আমার বাড়িতে হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ হয়েছে। এছাড়া মারপিট করে আমার স্ত্রীকে গুরতর আহত করেছে।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র আব্দুল্লাহ আল-পাঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

এ বিষয়ে রায়গঞ্জ থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. বাবুল আক্তার এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তদন্তপূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন