সোনামসজিদ বন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক, ৩ দিনে ঢুকেছে ১১০০ ট্রাক
jugantor
সোনামসজিদ বন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক, ৩ দিনে ঢুকেছে ১১০০ ট্রাক

  শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৯ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৫:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

সোনামসজিদ বন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক, ৩ দিনে ঢুকেছে ১১০০ ট্রাক

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা ও সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনায় সারা দেশের মতো চাঁপাইনবাবগঞ্জেও কঠোর বিধিনিষেধ মেনেই সোনামসজিদ স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চলছে।

বিধিনিষেধের প্রথম দিন গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে বন্দরে আমদানি কার্যক্রম বন্ধ থাকে। ১৫ এপ্রিল সকাল থেকে পুনরায় আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হয়। কঠোর লকডাউনের মধ্যেও গত তিন দিনে এক হাজার ১০০ ট্রাক পণ্য নিয়ে সোনামসজিদ বন্দরে এসেছে।

স্থলবন্দরের পানামা পোর্ট লিমিটেডের ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম জানান, স্থলবন্দরের স্বাভাবিকভাবেই কার্যক্রম চলছে। গত রোববার ভারত থেকে ৩৮৬ ট্রাক, গত শনিবার ৩৬৭ ট্রাক ও বৃহস্পতিবার ২৫৭ ট্রাক পণ্য নিয়ে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রবেশ করে।

ভারত থেকে আমদানীকৃত পণের মধ্যে রয়েছে ভুট্টা, চাল, পাথর, ফল, জিরা ও পেঁয়াজ।

তিনি আরও জানান, ভারত থেকে আসা পণ্যবাহী ট্রাকের চাকা করোনামুক্ত করার জন্য স্প্রে করা হচ্ছে। ভারতীয় চালক ও শ্রমিকদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার এবং শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে। মূলফটকে জীবাণুনাশক স্প্রের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সরকারের নির্দেশে এসব কার্যক্রম আরও কঠোরভাবে পালন করা হচ্ছে।

এমনকি পানামা পোর্ট এলাকায় পণ্য ওঠানামা কার্যক্রমে জড়িত শ্রমিকদের সংখ্যা অর্ধেক করা হয়েছে এবং তারাও স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করছেন।
সোনামসজিদ সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন জানান, কঠোর বিধিনিষেধ মেনে বন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমে কোনো রকম প্রভাব পড়ছে না। আগের মতোই স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্দরের কার্যক্রম চলছে।

সোনামসজিদের সহকারী কাস্টমস কমিশনার মমিনুল ইসলাম জানান, সরকারি ঘোষণার লকডাউনের মধ্যে সব ধরনের নিয়ম-কানুন মেনেই সোনামসজিদে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

সোনামসজিদ বন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক, ৩ দিনে ঢুকেছে ১১০০ ট্রাক

 শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৯ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সোনামসজিদ বন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক, ৩ দিনে ঢুকেছে ১১০০ ট্রাক
ছবি: যুগান্তর

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা ও সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনায় সারা দেশের মতো চাঁপাইনবাবগঞ্জেও কঠোর বিধিনিষেধ মেনেই সোনামসজিদ স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চলছে।

বিধিনিষেধের প্রথম দিন গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে বন্দরে আমদানি কার্যক্রম বন্ধ থাকে। ১৫ এপ্রিল সকাল থেকে পুনরায় আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হয়। কঠোর লকডাউনের মধ্যেও গত তিন দিনে এক হাজার ১০০ ট্রাক পণ্য নিয়ে সোনামসজিদ বন্দরে এসেছে।

স্থলবন্দরের পানামা পোর্ট লিমিটেডের ম্যানেজার মাইনুল ইসলাম জানান, স্থলবন্দরের স্বাভাবিকভাবেই কার্যক্রম চলছে। গত রোববার ভারত থেকে ৩৮৬ ট্রাক, গত শনিবার ৩৬৭ ট্রাক ও বৃহস্পতিবার ২৫৭ ট্রাক পণ্য নিয়ে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রবেশ করে।

ভারত থেকে আমদানীকৃত পণের মধ্যে রয়েছে ভুট্টা, চাল, পাথর, ফল, জিরা ও পেঁয়াজ।

তিনি আরও জানান, ভারত থেকে আসা পণ্যবাহী ট্রাকের চাকা করোনামুক্ত করার জন্য স্প্রে করা হচ্ছে। ভারতীয় চালক ও শ্রমিকদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার এবং শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে। মূলফটকে জীবাণুনাশক স্প্রের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সরকারের নির্দেশে এসব কার্যক্রম আরও কঠোরভাবে পালন করা হচ্ছে।

এমনকি পানামা পোর্ট এলাকায় পণ্য ওঠানামা কার্যক্রমে জড়িত শ্রমিকদের সংখ্যা অর্ধেক করা হয়েছে এবং তারাও স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করছেন।
সোনামসজিদ সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন জানান, কঠোর বিধিনিষেধ মেনে বন্দরে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমে কোনো রকম প্রভাব পড়ছে না। আগের মতোই স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্দরের কার্যক্রম চলছে।

সোনামসজিদের সহকারী কাস্টমস কমিশনার মমিনুল ইসলাম জানান, সরকারি ঘোষণার লকডাউনের মধ্যে সব ধরনের নিয়ম-কানুন মেনেই সোনামসজিদে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন