লকডাউনে নীলফামারী থেকে ধানকাটার শ্রমিক পাঠাচ্ছে পুলিশ
jugantor
লকডাউনে নীলফামারী থেকে ধানকাটার শ্রমিক পাঠাচ্ছে পুলিশ

  আব্দুর রাজ্জাক, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি  

১৯ এপ্রিল ২০২১, ১৪:৪৫:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বোরো ধানকাটার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষি শ্রমিক পাঠাচ্ছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশ।

ফিটনেস ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে রোববার রাতে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রথম দফায় শ্রমিক পাঠানো শুরু হয়েছে।

থানা সূত্রে জানা যায়, করোনায় লকডাউনের কারণে বিভিন্ন অঞ্চলের বোরো চাষিরা শ্রমিক সংকটে ভোগায় পুলিশ কিশোরগঞ্জ থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষি শ্রমিক পাঠানো শুরু করেছে।

রোববার রাত ১২টায় কুমিল্লার উদ্দেশ্যে বিশেষ ব্যবস্থায় ৫টি বাসে করে ১৭৫ শ্রমিক রওনা দিয়েছেন। করোনাকালে বিশেষ ব্যবস্থায় সহস্রাধিক কৃষি শ্রমিককে তাদের পছন্দের কাজের এলাকায় পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

আগ্রহী শ্রমিকদের থানায় নামের তালিকা দেওয়ার জন্য বিশেষভাবে আহ্বান জানানো হয়েছে। কাজে যেতে ইচ্ছুক শ্রমিকদের শারীরিক ফিটনেস যাচাই করে তাদের পছন্দের এলাকায় পাঠানো হচ্ছে।

এ সময় থানার ওসি যে কোনো সমস্যায় ফোন দেওয়ার জন্য তাদের নিজের মোবাইল নম্বর দেন।

বাসে ওঠার সময় শ্রমিকরা বলেন, করোনাকালে আমরা অর্থ সংকটে ভুগছি। লকডাউনের কারণে গাড়ি বন্ধ থাকায় কোথাও কাজে যেতে পারছি না। ধান কাটার কাজে বাইরে যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়ায় ওসিকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

এব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল জানান, শ্রমিকরা থানার মাধ্যমে ছাড়পত্র নিয়ে কাজে যাওয়া নিরাপদ ও স্বস্তিদায়ক মনে করছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সতর্কতার সঙ্গে কাজ করার জন্য তাদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

লকডাউনে নীলফামারী থেকে ধানকাটার শ্রমিক পাঠাচ্ছে পুলিশ

 আব্দুর রাজ্জাক, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি 
১৯ এপ্রিল ২০২১, ০২:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বোরো ধানকাটার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষি শ্রমিক পাঠাচ্ছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশ।

ফিটনেস ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে রোববার রাতে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রথম দফায় শ্রমিক পাঠানো শুরু হয়েছে।

থানা সূত্রে জানা যায়, করোনায় লকডাউনের কারণে বিভিন্ন অঞ্চলের বোরো চাষিরা শ্রমিক সংকটে ভোগায় পুলিশ কিশোরগঞ্জ থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষি শ্রমিক পাঠানো শুরু করেছে।

রোববার রাত ১২টায় কুমিল্লার উদ্দেশ্যে বিশেষ ব্যবস্থায় ৫টি বাসে করে ১৭৫ শ্রমিক রওনা দিয়েছেন। করোনাকালে বিশেষ ব্যবস্থায় সহস্রাধিক কৃষি শ্রমিককে তাদের পছন্দের কাজের এলাকায় পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

আগ্রহী শ্রমিকদের থানায় নামের তালিকা দেওয়ার জন্য বিশেষভাবে আহ্বান জানানো হয়েছে। কাজে যেতে ইচ্ছুক শ্রমিকদের শারীরিক ফিটনেস যাচাই করে তাদের পছন্দের এলাকায় পাঠানো হচ্ছে।

এ সময় থানার ওসি যে কোনো সমস্যায় ফোন দেওয়ার জন্য তাদের নিজের মোবাইল নম্বর দেন।

বাসে ওঠার সময় শ্রমিকরা বলেন, করোনাকালে আমরা অর্থ সংকটে ভুগছি। লকডাউনের কারণে গাড়ি বন্ধ থাকায় কোথাও কাজে যেতে পারছি না। ধান কাটার কাজে বাইরে যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়ায় ওসিকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

এব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল জানান, শ্রমিকরা থানার মাধ্যমে ছাড়পত্র নিয়ে কাজে যাওয়া নিরাপদ ও স্বস্তিদায়ক মনে করছেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সতর্কতার সঙ্গে কাজ করার জন্য তাদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন