ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৫৫ মামলায় গ্রেফতার ৩১০ হেফাজত নেতাকর্মী
jugantor
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৫৫ মামলায় গ্রেফতার ৩১০ হেফাজত নেতাকর্মী

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

১৯ এপ্রিল ২০২১, ২২:০৬:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত ইসলামের কর্মী-সমর্থকদের ২৬, ২৭ ও ২৮ মার্চ শহরজুড়ে ব্যাপক তাণ্ডব চালানো ঘটনায় আরও ১২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে ৫৫ মামলায় ৩১০ জনকে গ্রেফতার করা হলো।

রোববার রাতে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের দাবি গ্রেফতারকৃতরা সবাই হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থক।

সোমবার সকালে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে গণমাধ্যম কর্মী কাছে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তাণ্ডবের ঘটনায় জেলার বিভিন্ন থানায় মোট ৫৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় ৪৯টি, আশুগঞ্জ থানায় ৪টি, সরাইল থানায় ২টি। ৫৫টি মামলায় এজাহারনামীয় ৪১৪ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩৫ হাজার লোককে আসামি করা হয়েছে। পুলিশ শনিবার রাত পর্যন্ত মামলার ৩১০ জন আসামিকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিআইওয়ান) ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, পুলিশ আসামিদের ভিডিও ফুটেজ ও ছবি দেখে তাদেরকে গ্রেফতার করছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব: ৫৫ মামলায় গ্রেফতার ৩১০ হেফাজত নেতাকর্মী

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
১৯ এপ্রিল ২০২১, ১০:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত ইসলামের কর্মী-সমর্থকদের ২৬, ২৭ ও ২৮ মার্চ শহরজুড়ে ব্যাপক তাণ্ডব চালানো ঘটনায় আরও ১২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে ৫৫ মামলায় ৩১০ জনকে গ্রেফতার করা হলো।

রোববার রাতে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের দাবি গ্রেফতারকৃতরা সবাই হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থক।

সোমবার সকালে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে গণমাধ্যম কর্মী কাছে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তাণ্ডবের ঘটনায় জেলার বিভিন্ন থানায় মোট ৫৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় ৪৯টি, আশুগঞ্জ থানায় ৪টি, সরাইল থানায় ২টি। ৫৫টি মামলায় এজাহারনামীয় ৪১৪ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩৫ হাজার লোককে আসামি করা হয়েছে। পুলিশ শনিবার রাত পর্যন্ত মামলার ৩১০ জন আসামিকে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিআইওয়ান) ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, পুলিশ আসামিদের ভিডিও ফুটেজ ও ছবি দেখে তাদেরকে গ্রেফতার করছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন