মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছাত্রদলকর্মী গ্রেফতার 
jugantor
মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছাত্রদলকর্মী গ্রেফতার 

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি   

২০ এপ্রিল ২০২১, ২০:২৫:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর তার পক্ষে ফেসবুকে রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণার অভিযোগে শাহিন বিপ্লব (২৫) নামে এক ছাত্রদলকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মহম্মদপুর থানার এসআই জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

গত সোমবার গভীর রাতে উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। শাহিন বিপ্লব বড়রিয়া গ্রামের শাহজাহান সরদারের ছেলে। তিনি মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের একজন সক্রীয় কর্মী। তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের পরে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে তার গ্রেফতারের বিরোধিতা করে স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন- আল্লামা মামুনুল হককে গ্রেফতার করে হৃদয়ে আঘাত করেছ, আর ছাড় দেওয়া হবে না, এত বড় দুঃসাহস তোমাদের কে দিয়েছে। এখন শুধু একটি জিহাদের ঘোষণার অপেক্ষায় আছি। স্ট্যাটাস থেকে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে জিহাদে আসার আহবান জানানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, শাহীন বিপ্লব ১৯ এপ্রিল রাত ৯টা ৪৯ মিনিটে ফেসবুকে জেহাদের আহবান জানানোর পর তার আহবানে সাড়া দিয়ে কয়েক হাজার উচ্ছৃঙ্খল লোকজন জমায়েত হয়। পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে শাহীন বিপ্লব ফেসবুকের মাধ্যমে মিথ্যাচার করেছেন। এজন্য তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। তাকে ছাড়া মামলায় অজ্ঞাত ৭-৮ জন আসামিও রয়েছে।

মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ্বাস বলেন, পুলিশের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় শাহীন বিপ্লবকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছাত্রদলকর্মী গ্রেফতার 

 মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি  
২০ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের পর তার পক্ষে ফেসবুকে রাষ্ট্রবিরোধী প্রচারণার অভিযোগে শাহিন বিপ্লব (২৫) নামে এক ছাত্রদলকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

মহম্মদপুর থানার এসআই জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।  

গত সোমবার গভীর রাতে উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। শাহিন বিপ্লব বড়রিয়া গ্রামের শাহজাহান সরদারের ছেলে। তিনি মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের একজন সক্রীয় কর্মী। তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের পরে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে তার গ্রেফতারের বিরোধিতা করে স্ট্যাটাস দেন। স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন- আল্লামা মামুনুল হককে গ্রেফতার করে হৃদয়ে আঘাত করেছ, আর ছাড় দেওয়া হবে না, এত বড় দুঃসাহস তোমাদের কে দিয়েছে। এখন শুধু একটি জিহাদের ঘোষণার অপেক্ষায় আছি। স্ট্যাটাস থেকে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে জিহাদে আসার আহবান জানানো হয়। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, শাহীন বিপ্লব ১৯ এপ্রিল রাত ৯টা ৪৯ মিনিটে ফেসবুকে জেহাদের আহবান জানানোর পর তার আহবানে সাড়া দিয়ে কয়েক হাজার উচ্ছৃঙ্খল লোকজন জমায়েত হয়। পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে শাহীন বিপ্লব ফেসবুকের মাধ্যমে মিথ্যাচার করেছেন। এজন্য তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। তাকে ছাড়া মামলায় অজ্ঞাত ৭-৮ জন আসামিও রয়েছে। 

মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ্বাস বলেন, পুলিশের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় শাহীন বিপ্লবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন