মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি খোয়ালেন ইমাম
jugantor
মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি খোয়ালেন ইমাম

  বগুড়া ব্যুরো  

২০ এপ্রিল ২০২১, ২১:২২:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে খোয়ালেন বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের ইমাম মুরশিদুল ইসলাম। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। এর আগে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল।

মসজিদ কমিটির সভাপতি ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাসানুল হাসিব এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মুরশিদুল হক ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে। তিনি ৫-৬ বছর এই মসজিদে ইমামতি করেন। তিনি অবৈধভাবে উপজেলা পরিষদের স্টোরকিপারের কোয়ার্টার দখলে নিয়ে সেখানে পরিবার নিয়ে বাস করতেন।

৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের রয়্যাল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক এক নারীসহ ধরা পড়েন। ওইদিন মুরশিদুল ইসলাম তার ফেসবুক আইডিতে মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস দেন। বিষয়টি মসজিদ পরিচালনা কমিটি, সরকারি দলের নেতাকর্মী ও মুসল্লিদের নজরে আসে। এতে সবার মধ্যে ইমাম সম্পর্কে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। মসজিদ কমিটি ওইদিন তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টার ছেড়ে দিতে বলা হয়।

এ প্রসঙ্গে মুরশিদুল ইসলাম জানান, মাওলানা মামুনুল হককে হেনস্তা করার বিষয়টি তিনি সহ্য করতে পারেননি। তাই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। তাতে সরকারবিরোধী কোনো কথা ছিল না। পরবর্তী সময়ে ভুল বুঝতে পেরে ফেসবুক থেকে স্ট্যাটাসটি সরিয়ে মসজিদ কমিটির কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। কিন্তু কমিটি তাকে চাকরিচ্যুত করেছে।

মামুনুলের পক্ষে স্ট্যাটাস দিয়ে চাকরি খোয়ালেন ইমাম

 বগুড়া ব্যুরো 
২০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে খোয়ালেন বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের ইমাম মুরশিদুল ইসলাম। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। এর আগে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল।

মসজিদ কমিটির সভাপতি ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাসানুল হাসিব এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মুরশিদুল হক ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে। তিনি ৫-৬ বছর এই মসজিদে ইমামতি করেন। তিনি অবৈধভাবে উপজেলা পরিষদের স্টোরকিপারের কোয়ার্টার দখলে নিয়ে সেখানে পরিবার নিয়ে বাস করতেন।

৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের রয়্যাল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক এক নারীসহ ধরা পড়েন। ওইদিন মুরশিদুল ইসলাম তার ফেসবুক আইডিতে মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস দেন। বিষয়টি মসজিদ পরিচালনা কমিটি, সরকারি দলের নেতাকর্মী ও মুসল্লিদের নজরে আসে। এতে সবার মধ্যে ইমাম সম্পর্কে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। মসজিদ কমিটি ওইদিন তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টার ছেড়ে দিতে বলা হয়।

এ প্রসঙ্গে মুরশিদুল ইসলাম জানান, মাওলানা মামুনুল হককে হেনস্তা করার বিষয়টি তিনি সহ্য করতে পারেননি। তাই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। তাতে সরকারবিরোধী কোনো কথা ছিল না। পরবর্তী সময়ে ভুল বুঝতে পেরে ফেসবুক থেকে স্ট্যাটাসটি সরিয়ে মসজিদ কমিটির কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। কিন্তু কমিটি তাকে চাকরিচ্যুত করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন