আ’লীগ নেতা মিকনকে ক্রসফায়ারের ষড়যন্ত্র চলছে: কাদের মির্জা
jugantor
আ’লীগ নেতা মিকনকে ক্রসফায়ারের ষড়যন্ত্র চলছে: কাদের মির্জা

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২০ এপ্রিল ২০২১, ২২:২৭:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত সিরাজপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মিকনকে (৪২) ক্রসফায়ারে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করেছেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিজের অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে এই অভিযোগ করেন তিনি। লাইভটি কাদের মির্জার ফেসবুকে ট্যাগ দেওয়া হয়েছে।

কাদের মির্জা বলেন, অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আমাকে লাইভ দিতে হচ্ছে। একটু আগে আমি শুনেছি নোয়াখালীর এসপি, এডিশনাল এসপি শামিম ও ওসি (কোম্পানীগঞ্জ) মিলে সিদ্ধান্ত নিয়ে নাজিম উদ্দিন মিকনকে ক্রসফায়ার দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। এ ধরনের ঘটনার পরিণতি হবে অত্যন্ত ভয়াবহ। আমার একফোঁটা রক্ত থাকলে তার জবাব কী দিয়ে দিতে হয় তা আমি জানি। এধরনের কিছু ঘটলে আমার ৪৭ বছরের রাজনীতির অভিজ্ঞতা দিয়ে তার জবাব দিব।

তিনি বলেন, ৪৭ বছরের রাজনীতিতে কোনো পুলিশ অফিসার আমার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলে নাই, গায়ে হাত দেওয়া তো দূরে থাক। আজকে শামিমের মতো অফিসার আমার গায়ে হাত দেয়। রক্তের হলি খেলা কোম্পানীগঞ্জে চলবে এটা কোনো অবস্থায় ছেড়ে দেওয়া হবে না।

অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এটা তার রাজনৈতিক বক্তব্য। আইনানুসারে নাজিম উদ্দিন মিকনকে কোর্টে চালান দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ভোরে প্রযুক্তির মাধ্যমে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে পার্শ্ববর্তী কবিরহাট উপজেলার কবিরহাট বাজারের পাশের একটি বাড়ি থেকে নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত নাজিম উদ্দিন মিকনকে (৪২) আটক করেছে পুলিশ।

আটক নাজিম উদ্দিন মিকন সিরাজপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ফকির উদ্দিন কামালের ছেলে ও কাদের মির্জা সমর্থিত সিরাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও আগামী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী।

আ’লীগ নেতা মিকনকে ক্রসফায়ারের ষড়যন্ত্র চলছে: কাদের মির্জা

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২০ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত সিরাজপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মিকনকে (৪২) ক্রসফায়ারে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করেছেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিজের অনুসারী স্বপন মাহমুদের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে এই অভিযোগ করেন তিনি। লাইভটি কাদের মির্জার ফেসবুকে ট্যাগ দেওয়া হয়েছে।

কাদের মির্জা বলেন, অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আমাকে লাইভ দিতে হচ্ছে। একটু আগে আমি শুনেছি নোয়াখালীর এসপি, এডিশনাল এসপি শামিম ও ওসি (কোম্পানীগঞ্জ) মিলে সিদ্ধান্ত নিয়ে নাজিম উদ্দিন মিকনকে ক্রসফায়ার দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। এ ধরনের ঘটনার পরিণতি হবে অত্যন্ত ভয়াবহ। আমার একফোঁটা রক্ত থাকলে তার জবাব কী দিয়ে দিতে হয় তা আমি জানি। এধরনের কিছু ঘটলে আমার ৪৭ বছরের রাজনীতির অভিজ্ঞতা দিয়ে তার জবাব দিব।  

তিনি বলেন, ৪৭ বছরের রাজনীতিতে কোনো পুলিশ অফিসার আমার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলে নাই, গায়ে হাত দেওয়া তো দূরে থাক। আজকে শামিমের মতো অফিসার আমার গায়ে হাত দেয়। রক্তের হলি খেলা কোম্পানীগঞ্জে চলবে এটা কোনো অবস্থায় ছেড়ে দেওয়া হবে না।

অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে নোয়াখালীর  পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এটা তার রাজনৈতিক বক্তব্য। আইনানুসারে নাজিম উদ্দিন মিকনকে কোর্টে চালান দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ভোরে প্রযুক্তির মাধ্যমে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে পার্শ্ববর্তী কবিরহাট উপজেলার কবিরহাট বাজারের পাশের একটি বাড়ি থেকে নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত নাজিম উদ্দিন মিকনকে (৪২) আটক করেছে পুলিশ।

আটক নাজিম উদ্দিন মিকন সিরাজপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত ফকির উদ্দিন কামালের ছেলে ও কাদের মির্জা সমর্থিত সিরাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও আগামী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন