শ্রীপুরের মেয়রকে নিয়ে কাউন্সিলরের গান ভাইরাল
jugantor
শ্রীপুরের মেয়রকে নিয়ে কাউন্সিলরের গান ভাইরাল

  যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর  

২১ এপ্রিল ২০২১, ১৯:২১:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমানকে উদ্দেশ্য করে লেখা সদ্যবিদায়ী কাউন্সিলরের ফেসবুক লাইভে গাওয়া একটি গান ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে মেয়রের কথামতো ভুয়া বিল ভাউচারে সই দেয়ার কথা বলা হয়েছে।

পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড (ভাংনাহাটি) থেকে সম্প্রতি সাবেক হওয়া এই কাউন্সিলরের নিজের লেখা ও সুর করা গানটি একাধিক শেয়ারের পাশাপাশি বিভিন্নজনের ম্যাসেঞ্জারে তা ছড়িয়ে পড়েছে৷ এ নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

কাউন্সিলরের লাইভের কথাগুলো হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘গত ১৬ জানুয়ারি ২০২০ যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে তাতে আলহামদুলিল্লাহ, আমি আপনাদের সবার প্রতি সন্তুষ্ট। কারণ আপনারা আমাকে ভোট দিয়েছেন। যে কোনো কারণবশত আমাকে পরাজয়ের এ গ্লানি নিয়ে ঘরে ফিরতে হয়েছে।

যাই হোক, তাতে আমি বিচলিত নই। আপনাদের প্রতি সন্তুষ্ট রয়েছি। আগামী দিন যেন আপনাদের পাশে থাকতে পারি, আপনাদের সেবায় নিয়োজিত থাকতে পারি, সে তৌফিক যেন মহান আল্লাহ পাক আমাকে দান করেন। তো ১৬ তারিখ পরাজয় বরণের পর আমি নিজে একটি গান রচনা করেছিলাম এবং নিজেই সুর করেছিলাম। আমি কোনো প্রফেশনাল শিল্পী নই। তারপরও আমি নিজের মতো করে সাজিয়েছি গানটি এবং সুর করেছি।

আমার আজকে খুব ইচ্ছে করছে লাইভ প্রোগ্রামে এসে আপনাদের ওই গানের কয়েকটি কলি শোনাতে। তাতে কেউ যদি কষ্ট পায় আমার করার কিছু নাই। সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন যদি আমি ভুল করে থাকি।

আমার নিজের গাওয়া এবং নিজের লিখা একটি গানের দুই-একটি কলি এখন গাইতে চেষ্টা করছি। সবাই দোয়া করবেন-

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

সরল পেয়ে আমার সঙ্গে, তুমি করলে চালাকি, কয়দিন পরে বুঝবে আনিছ ভাই, এ চালাকের চালাকি।

সরল পেয়ে আমার সঙ্গে, তুমি করলে চালাকি, কয়দিন পরে বুঝবে আনিছ ভাই, সে চালাকের চালাকি। হায়রে সে চালাকের চালাকি।

একদিন এই মানুষকে, সরল এ মানুষকে, একদিন তুমি খুঁজবে দিবারাত্র। সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি করে দিলা উপহাসের পাত্র।

পৌরসভায় আসতে তুমি গায়ে জামা পড়ে নীল-আমি শুধু সই করেছি, কতোই ভুয়া বিল, হায়রে কতোই ভুয়া বিল।

পৌরসভায় আসতে তুমি গায়ে জামা পড়ে নীল-আমি শুধু সই করেছি, কতোই ভুয়া বিল, হায়রে কতোই ভুয়া বিল।

এখন আমি বুঝে গেছি, এখন আমি বুঝে গেছি- আমি তোমার প্রয়োজনে ছিলাম মাত্র। সে এখন হয়ে গেছে উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

সবাই যখন রাস্তায় রাস্তায় করে বিজয় মিছিল, আমি তখন বাধ্য হয়ে বসে থাকি ঘরে দিয়া খিল। আনিস ভাই, ঘরে দিয়া খিল।

সবাই যখন রাস্তায় রাস্তায় করে বিজয় মিছিল, আমি তখন বাধ্য হয়ে বসে থাকি ঘরে দিয়া খিল। আনিস ভাই, ঘরে দিয়া খিল।

তাই দেখিয়া পৌরবাসীর, তাই দেখিয়া ওয়ার্ডবাসীর জ্বলে সারা গাত্র। তাকে তুমি করে বানাইলা উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

যে তোমায় ভালোবেসে,যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেল উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

সম্মানিত শ্রোতা কেউ আমার গানে কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে আমি ক্ষমা প্রার্থী এবং মেয়র আনিছুর রহমান যদি আমার এ লাইভ প্রোগ্রাম দেখে থাকেন তাহলে তার কাছে আমি ক্ষমা প্রার্থী।

বিষয়টি সম্পর্কে বক্তব্য নেয়ার প্রয়োজনে সদ্যবিদায়ী কাউন্সিলর শাহজাহান মণ্ডলের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র আনিছুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, ভুয়া বিল ভাউচারে সই করার কোনো সুযোগ নেই। পৌরসভায় নিয়মিতই মন্ত্রণালয়ের অডিট হচ্ছে। সাবেক কাউন্সিলরের ফেসবুক লাইভে দেয়া বক্তব্য সম্পূর্ণই তার ব্যক্তিগত বিষয়।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে কোনো কাউন্সিলরকে জিতিয়ে দেয়া বা কাউকে পরাজিত করাতে আমার কোনো হাত নেই। ১৬ জানুয়ারি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে। এ নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করার কোনো সুযোগ নাই।

শ্রীপুরের মেয়রকে নিয়ে কাউন্সিলরের গান ভাইরাল

 যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর 
২১ এপ্রিল ২০২১, ০৭:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমানকে উদ্দেশ্য করে লেখা সদ্যবিদায়ী কাউন্সিলরের ফেসবুক লাইভে গাওয়া একটি গান ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে মেয়রের কথামতো ভুয়া বিল ভাউচারে সই দেয়ার কথা বলা হয়েছে। 

পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড (ভাংনাহাটি) থেকে সম্প্রতি সাবেক হওয়া এই কাউন্সিলরের নিজের লেখা ও সুর করা গানটি একাধিক শেয়ারের পাশাপাশি বিভিন্নজনের ম্যাসেঞ্জারে তা ছড়িয়ে পড়েছে৷ এ নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

কাউন্সিলরের লাইভের কথাগুলো হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘গত ১৬ জানুয়ারি ২০২০ যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে তাতে আলহামদুলিল্লাহ, আমি আপনাদের সবার প্রতি সন্তুষ্ট। কারণ আপনারা আমাকে ভোট দিয়েছেন। যে কোনো কারণবশত আমাকে পরাজয়ের এ গ্লানি নিয়ে ঘরে ফিরতে হয়েছে।

যাই হোক, তাতে আমি বিচলিত নই। আপনাদের প্রতি সন্তুষ্ট রয়েছি। আগামী দিন যেন আপনাদের পাশে থাকতে পারি, আপনাদের সেবায় নিয়োজিত থাকতে পারি, সে তৌফিক যেন মহান আল্লাহ পাক আমাকে দান করেন। তো ১৬ তারিখ পরাজয় বরণের পর আমি নিজে একটি গান রচনা করেছিলাম এবং নিজেই সুর করেছিলাম। আমি কোনো প্রফেশনাল শিল্পী নই। তারপরও আমি নিজের মতো করে সাজিয়েছি গানটি এবং সুর করেছি।

আমার আজকে খুব ইচ্ছে করছে লাইভ প্রোগ্রামে এসে আপনাদের ওই গানের কয়েকটি কলি শোনাতে। তাতে কেউ যদি কষ্ট পায় আমার করার কিছু নাই। সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন যদি আমি ভুল করে থাকি।

আমার নিজের গাওয়া এবং নিজের লিখা একটি গানের দুই-একটি কলি এখন গাইতে চেষ্টা করছি। সবাই দোয়া করবেন-

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। 

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

সরল পেয়ে আমার সঙ্গে, তুমি করলে চালাকি, কয়দিন পরে বুঝবে আনিছ ভাই, এ চালাকের চালাকি।

সরল পেয়ে আমার সঙ্গে, তুমি করলে চালাকি, কয়দিন পরে বুঝবে আনিছ ভাই, সে চালাকের চালাকি। হায়রে সে চালাকের চালাকি।

একদিন এই মানুষকে, সরল এ মানুষকে, একদিন তুমি খুঁজবে দিবারাত্র। সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি করে দিলা উপহাসের পাত্র।

পৌরসভায় আসতে তুমি গায়ে জামা পড়ে নীল-আমি শুধু সই করেছি, কতোই ভুয়া বিল, হায়রে কতোই ভুয়া বিল। 

পৌরসভায় আসতে তুমি গায়ে জামা পড়ে নীল-আমি শুধু সই করেছি, কতোই ভুয়া বিল, হায়রে কতোই ভুয়া বিল। 

এখন আমি বুঝে গেছি, এখন আমি বুঝে গেছি- আমি তোমার প্রয়োজনে ছিলাম মাত্র। সে এখন হয়ে গেছে উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। 

যে তোমায় ভালোবেসে, যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেলো উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। 

সবাই যখন রাস্তায় রাস্তায় করে বিজয় মিছিল, আমি তখন বাধ্য হয়ে বসে থাকি ঘরে দিয়া খিল। আনিস ভাই, ঘরে দিয়া খিল। 

সবাই যখন রাস্তায় রাস্তায় করে বিজয় মিছিল, আমি তখন বাধ্য হয়ে বসে থাকি ঘরে দিয়া খিল। আনিস ভাই, ঘরে দিয়া খিল। 

তাই দেখিয়া পৌরবাসীর, তাই দেখিয়া ওয়ার্ডবাসীর জ্বলে সারা গাত্র। তাকে তুমি করে বানাইলা উপহাসের পাত্র। আমায় তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। 

যে তোমায় ভালোবেসে,যে তোমায় সম্মান করে, ফেসবুকে পোস্ট মারিতো, লাইভ প্রোগ্রামে যেতো, তোমার কিছু হওয়া মাত্র- সে এখন হয়ে গেল উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র। তাকে তুমি বানাইলা উপহাসের পাত্র।

সম্মানিত শ্রোতা কেউ আমার গানে কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে আমি ক্ষমা প্রার্থী এবং মেয়র আনিছুর রহমান যদি আমার এ লাইভ প্রোগ্রাম দেখে থাকেন তাহলে তার কাছে আমি ক্ষমা প্রার্থী।

বিষয়টি সম্পর্কে বক্তব্য নেয়ার প্রয়োজনে সদ্যবিদায়ী কাউন্সিলর শাহজাহান মণ্ডলের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। 

এ বিষয়ে পৌর মেয়র আনিছুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, ভুয়া বিল ভাউচারে সই করার কোনো সুযোগ নেই। পৌরসভায় নিয়মিতই মন্ত্রণালয়ের অডিট হচ্ছে। সাবেক কাউন্সিলরের ফেসবুক লাইভে দেয়া বক্তব্য সম্পূর্ণই তার ব্যক্তিগত বিষয়। 

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে কোনো কাউন্সিলরকে জিতিয়ে দেয়া বা কাউকে পরাজিত করাতে আমার কোনো হাত নেই। ১৬ জানুয়ারি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে। এ নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করার কোনো সুযোগ নাই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন