সেপটিক ট্যাংকে হাত-পা ও মাথাবিহীন লাশ
jugantor
সেপটিক ট্যাংকে হাত-পা ও মাথাবিহীন লাশ

  গাজীপুর প্রতিনিধি   

২১ এপ্রিল ২০২১, ২১:৪৪:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের সিটি করপোরেশনের কাশিমপুরের সারদাগঞ্জ এলাকার একটি সেপটিক ট্যাংক থেকে বস্তাবন্দি অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত হাত-পা ও মাথাবিহীন একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার সকালে গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানা পুলিশ সারদাগঞ্জের হাজী মার্কেট পুকুরপাড় এলাকার একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় গিয়াস উদ্দিনের ভাড়া বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ আসায় স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। পরে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে পুলিশ এসে ওই বস্তার ভেতরে যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুবে খোদা জানান, সকালে স্থানীয়দের খবরে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের মাথা ও হাত-পা পাওয়া যায়নি।

ধারণা করা হচ্ছে, আনুমানিক ২ থেকে ৩ দিন আগে দুর্বৃত্তরা তাকে অন্যত্র হত্যা করেছে। পরে মৃতদেহ যাতে শনাক্ত করা না যায় এজন্য হাত-পা ও মাথা বিচ্ছিন্ন করে দেহটি ওই সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে ফেলে দিয়ে পালিয়ে গেছে। পুলিশ লাশের অন্য অংশগুলি এবং পরিচয় খুঁজে দেখছে। নিহতের পরনে জিন্সের প্যান্ট ছিল।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার খোয়াই অংপ্রু মারমা জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যা। এর রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

সেপটিক ট্যাংকে হাত-পা ও মাথাবিহীন লাশ

 গাজীপুর প্রতিনিধি  
২১ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের সিটি করপোরেশনের কাশিমপুরের সারদাগঞ্জ এলাকার একটি সেপটিক ট্যাংক থেকে বস্তাবন্দি অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত হাত-পা ও মাথাবিহীন একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

বুধবার সকালে গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানা পুলিশ সারদাগঞ্জের হাজী মার্কেট পুকুরপাড় এলাকার একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় গিয়াস উদ্দিনের ভাড়া বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ আসায় স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। পরে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে পুলিশ এসে ওই বস্তার ভেতরে যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুবে খোদা জানান, সকালে স্থানীয়দের খবরে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের মাথা ও হাত-পা পাওয়া যায়নি। 

ধারণা করা হচ্ছে, আনুমানিক ২ থেকে ৩ দিন আগে দুর্বৃত্তরা তাকে অন্যত্র হত্যা করেছে। পরে মৃতদেহ যাতে শনাক্ত করা না যায় এজন্য হাত-পা ও মাথা বিচ্ছিন্ন করে দেহটি ওই সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে ফেলে দিয়ে পালিয়ে গেছে। পুলিশ লাশের অন্য অংশগুলি এবং পরিচয় খুঁজে দেখছে। নিহতের পরনে জিন্সের প্যান্ট ছিল। 

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার খোয়াই অংপ্রু মারমা জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যা। এর রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন