হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধনে হামলায় নারীসহ আহত ১০
jugantor
হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধনে হামলায় নারীসহ আহত ১০

  সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি  

২২ এপ্রিল ২০২১, ২২:৩৬:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেনীর সোনাগাজীতে অনৈতিক কাজ ও গ্রামবাসীকে হয়রানির প্রতিবাদে এলাকাবাসীর আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে হামলা চালিয়েছে ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা। হামলায় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সোনাগাজীর জিরো পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পূর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের বস্তিতে চার বোনের একটি পরিবার দীর্ঘ যাবত এলাকাবাসীর উপর নানা অত্যাচার, মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা ও অনৈতিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। তাদের নানা অত্যাচার, নির্যাতন ও হয়রানি থেকে রক্ষা পেতে ওই গ্রামের পাঁচ শতাধিক নারী- পুরুষ সোনাগাজীর জিরো পয়েন্টে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে।

আহতরা হলেন- স্থানীয় গ্রামবাসী নুরুল আলম (৪০), আসমা আক্তার (৩৫), আলা উদ্দিন (৩০), মাইন উদ্দিন (৩০), গোলাম মাওলা (৫০), রাজিব (২৮), হৃদয় (২৫) ও আবু ইউছুফ (৪৫), রিয়াদ (৩০) ও আকলিমা আক্তার (৩২)। আহতদেরকে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মানববন্ধনের শুরুতেই বিনা উস্কানিতে আকলিমা আক্তার সোহাগী, রোকেয়া, শিউলি, তাছলিমা আক্তার, আবুইউছুপ, নুরুল করিম, মো. জনির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে ৮ গ্রামবাসীসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়। প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে।

পরে সংক্ষিপ্ত মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে গ্রামবাসী অভিযোগ করেন, দক্ষিণ পূর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের মরহুম আবদুর রাজ্জাকের দ্বিতীয় স্ত্রী রুপিয়া খাতুন ও তার চার মেয়ে তাছলিমা আক্তার, আকলিমা আক্তার সোহাগী, রোকেয়া বেগম, শিউলি বেগম, ছেলে জাকির হোসেন, তাসলিমার স্বামী আবু ইউছুপ ও আকলিমা আক্তার সোহাগীর স্বামী নুরুল করিম মাসুদসহ তারা দীর্ঘদিন থেকে সংঘবদ্ধ হয়ে উক্ত বস্তিতে নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। তাদের অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় সর্ব সাধারণের ব্যবহৃত গভীর নলকূপের হাতলটি নিয়ে যায় আকলিমা আক্তার সোহাগী। ফলে বস্তির আশপাশের লোকজন পবিত্র রমজানে পানি সংকটে অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হন। এ নিয়ে গত সোমবার সন্ধ্যায় ওই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে গ্রামবাসীর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন মীমাংসা করে দেন। এদিকে চেয়ারম্যানের আদেশ অমান্য করে আকলিমা আক্তার সোহাগী বাদী হয়ে হাজী জিন্নাত আলী সমাজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাওলানা কালিম উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলমগীর হোসেন, সমাজপতি গোলাম মাওলানা, জসিম উদ্দিন, বেলাল হোসেন, সাহাব উদ্দিন ও আকলিমা আক্তারের সহোদর প্রতিবাদী মাইন উদ্দিনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এতে গ্রামবাসীর মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। পুরো এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মিথ্যা মামলায় হয়রানিসহ অনৈতিক কাজের প্রতিবাদে গ্রামের সর্বস্তরের জনতার পক্ষ থেকে এ মানববন্ধন কর্মসূচি ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন স্থানী ইউপি সদস্য মো. নুর নবী তোতা, মো. গোলাম মাওলা, আকলিমা আক্তারের সহোদর আমির খান, আবদুস সালাম সোহাগ ও আহম্মদ করিম লিটন প্রমুখ।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধনে হামলায় নারীসহ আহত ১০

 সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি 
২২ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেনীর সোনাগাজীতে অনৈতিক কাজ ও গ্রামবাসীকে হয়রানির প্রতিবাদে এলাকাবাসীর আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে হামলা চালিয়েছে ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা। হামলায় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সোনাগাজীর জিরো পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পূর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের বস্তিতে চার বোনের একটি পরিবার দীর্ঘ যাবত এলাকাবাসীর উপর নানা অত্যাচার, মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা ও অনৈতিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। তাদের নানা অত্যাচার, নির্যাতন ও হয়রানি থেকে রক্ষা পেতে ওই গ্রামের পাঁচ শতাধিক নারী- পুরুষ সোনাগাজীর জিরো পয়েন্টে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে।

আহতরা হলেন- স্থানীয় গ্রামবাসী নুরুল আলম (৪০), আসমা আক্তার (৩৫), আলা উদ্দিন (৩০), মাইন উদ্দিন (৩০), গোলাম মাওলা (৫০), রাজিব (২৮), হৃদয় (২৫) ও আবু ইউছুফ (৪৫), রিয়াদ (৩০) ও আকলিমা আক্তার (৩২)। আহতদেরকে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মানববন্ধনের শুরুতেই বিনা উস্কানিতে আকলিমা আক্তার সোহাগী, রোকেয়া, শিউলি, তাছলিমা আক্তার, আবুইউছুপ, নুরুল করিম, মো. জনির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে ৮ গ্রামবাসীসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়। প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে।

পরে সংক্ষিপ্ত মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে গ্রামবাসী অভিযোগ করেন, দক্ষিণ পূর্ব চরচান্দিয়া গ্রামের মরহুম আবদুর রাজ্জাকের দ্বিতীয় স্ত্রী রুপিয়া খাতুন ও তার চার মেয়ে তাছলিমা আক্তার, আকলিমা আক্তার সোহাগী, রোকেয়া বেগম, শিউলি বেগম, ছেলে জাকির হোসেন, তাসলিমার স্বামী আবু ইউছুপ ও আকলিমা আক্তার সোহাগীর স্বামী নুরুল করিম মাসুদসহ তারা দীর্ঘদিন থেকে সংঘবদ্ধ হয়ে উক্ত বস্তিতে নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। তাদের অনৈতিক কাজের প্রতিবাদ করায় সর্ব সাধারণের ব্যবহৃত গভীর নলকূপের হাতলটি নিয়ে যায় আকলিমা আক্তার সোহাগী। ফলে বস্তির আশপাশের লোকজন পবিত্র রমজানে পানি সংকটে অবর্ণনীয় দুর্ভোগের শিকার হন। এ নিয়ে গত সোমবার সন্ধ্যায় ওই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে গ্রামবাসীর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। 

বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন মীমাংসা করে দেন। এদিকে চেয়ারম্যানের আদেশ অমান্য করে আকলিমা আক্তার সোহাগী বাদী হয়ে হাজী জিন্নাত আলী সমাজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাওলানা কালিম উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলমগীর হোসেন, সমাজপতি গোলাম মাওলানা, জসিম উদ্দিন, বেলাল হোসেন, সাহাব উদ্দিন ও আকলিমা আক্তারের সহোদর প্রতিবাদী মাইন উদ্দিনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এতে গ্রামবাসীর মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। পুরো এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মিথ্যা মামলায় হয়রানিসহ অনৈতিক কাজের প্রতিবাদে গ্রামের সর্বস্তরের জনতার পক্ষ থেকে এ মানববন্ধন কর্মসূচি ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন স্থানী ইউপি সদস্য মো. নুর নবী তোতা, মো. গোলাম মাওলা, আকলিমা আক্তারের সহোদর আমির খান, আবদুস সালাম সোহাগ ও আহম্মদ করিম লিটন প্রমুখ।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন