উখিয়ায় ইয়াবাসহ ৩ আর্মড পুলিশ গ্রেফতার
jugantor
উখিয়ায় ইয়াবাসহ ৩ আর্মড পুলিশ গ্রেফতার

  উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি  

২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৭:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের উখিয়ায়য় ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প (তানজিমারখোলা) এলাকা থেকে তিন আর্মড পুলিশ সদস্যকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজ কক্ষ থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে ৮ এপিবিএনের সদস্যরা। এসময় তাদের কাছ থেকে এক হাজার ৯৫৪ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ৮ এপিবিএন কর্মরত এসআই সোহাগ ও দুই কনস্টেবল মিরাজ ও মো. নাজিম।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে ,শরণার্থী ক্যাম্প-১৩ ব্লক-এ এর হেডমাঝি একরামকে (৩৮) দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা বিক্রি করতে এসআই সোহাগ চাপ দিয়ে আসছিলেন। একপর্যায়ে হেডমাঝি একরাম বিষয়টি ৮ এপিবিএন সিনিয়র এএসপি কামরুল ইসলামকে অবগত করেন।

পরে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে হেডমাঝি একরামের সঙ্গে এসআই সোহাগের বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে এপিবিএনের সিনিয়র কর্মকর্তারা ঘটনার সম্পৃক্ততা নিশ্চিত হয়। পরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও জাল টাকাসহ ওই তিন আর্মড পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) -৮এর অধিনায়ক শিহাব কায়সার খান গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ইয়াবা সম্পৃক্ততার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর রাত ১০টার দিকে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলার দায়ের করে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয় হয়েছে।

এ ছাড়াও আরও কেউ মাদকের সঙ্গে জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীঘোষিত জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

উখিয়ায় ইয়াবাসহ ৩ আর্মড পুলিশ গ্রেফতার

 উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি 
২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কক্সবাজারের উখিয়ায়য় ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প (তানজিমারখোলা) এলাকা থেকে তিন আর্মড পুলিশ সদস্যকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজ কক্ষ থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে ৮ এপিবিএনের সদস্যরা। এসময় তাদের কাছ থেকে এক হাজার ৯৫৪ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ৮ এপিবিএন কর্মরত এসআই সোহাগ ও দুই কনস্টেবল মিরাজ ও মো. নাজিম।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে ,শরণার্থী ক্যাম্প-১৩ ব্লক-এ এর হেডমাঝি একরামকে (৩৮) দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা বিক্রি করতে এসআই সোহাগ চাপ দিয়ে আসছিলেন। একপর্যায়ে হেডমাঝি একরাম বিষয়টি ৮ এপিবিএন সিনিয়র এএসপি কামরুল ইসলামকে অবগত করেন।

পরে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে হেডমাঝি একরামের সঙ্গে এসআই সোহাগের বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে এপিবিএনের সিনিয়র কর্মকর্তারা ঘটনার সম্পৃক্ততা নিশ্চিত হয়। পরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ও জাল টাকাসহ ওই তিন আর্মড পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) -৮এর অধিনায়ক শিহাব কায়সার খান গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ইয়াবা সম্পৃক্ততার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর রাত  ১০টার দিকে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলার দায়ের করে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয় হয়েছে।

এ ছাড়াও আরও কেউ মাদকের সঙ্গে জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীঘোষিত জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।  

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন