রাজশাহীতে জমি বিরোধে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেফতার ৪  
jugantor
রাজশাহীতে জমি বিরোধে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেফতার ৪  

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:১৬:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

জমি বিরোধের জেরে রাজশাহীর বাগমারায় প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত হয়েছেন।

নিহত কাজী হাবিল উদ্দিন (৪৫) উপজেলার গণিপুর ইউনিয়নের মাধাইমুড়ি গ্রামের কাজী আজিমুদ্দিনের ছেলে।

প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন নিহত হাবিলের বাবা কাজী আজিমুদ্দিন (৬৫), ছেলে জুয়েল উদ্দিন (২৩), চাচা আব্দুর রাজ্জাক (৫৫), চাচাত ভাই সৈকত উদ্দিন (১৬) ও প্রতিবেশি মনসুর রহমান (৪৫)।

আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে এশার নাজামের আগে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে ২০ জনের নামে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এজাহারভুক্ত ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত হাবিলের পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশি সেফাতুল্লাহর বিরোধ চলছিল একটি জমি নিয়ে। দুই পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা মোকদ্দমাও আছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে হাবিল ও তার ছেলে পানবরজের কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় সেফাতুল্লাহ ও তার পক্ষের লোকেরা গতিরোধ করেন। তবে ওই সময় গ্রামবাসী দুই পক্ষকে সংঘর্ষ থেকে নিবৃত্ত করেন।

এদিকে ইফতারির কিছুক্ষণ পর কাজী হাবিল উদ্দিন মসজিদে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। এ সময় সেফাতুল্লাহ ও তার ছেলে, ভাই ভাতিজাসহ লাটিসেটা নিয়ে হাবিলের ওপর হামলা করে। তারা ঘটনাস্থলেই হাবিলকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেন। হাবিলকে বাঁচাতে তার বাবা, ছেলে, ভাতিজা ও গ্রামবাসী এগিয়ে এলে তাদের ওপরও হামলা করে সেফাতুল্লাহর লোকেরা।

হাবিলকে উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ যুগান্তরকে জানিয়েছেন, হাবিল হত্যার অভিযোগে রাতেই নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে ২০ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এজাহারভুক্ত ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছেন।

গ্রেফতাররা হলেন- আকলিমা বেগম, আলেফা বেগম, ফাহিমা বেগম ও মাহবুবুর রহমান। আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে নিহত হাবিলের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে শুক্রবার দুপুরে।

রাজশাহীতে জমি বিরোধে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেফতার ৪  

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জমি বিরোধের জেরে রাজশাহীর বাগমারায় প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত হয়েছেন। 

নিহত কাজী হাবিল উদ্দিন (৪৫) উপজেলার গণিপুর ইউনিয়নের মাধাইমুড়ি গ্রামের কাজী আজিমুদ্দিনের ছেলে। 

প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন নিহত হাবিলের বাবা কাজী আজিমুদ্দিন (৬৫), ছেলে জুয়েল উদ্দিন (২৩), চাচা আব্দুর রাজ্জাক (৫৫), চাচাত ভাই সৈকত উদ্দিন (১৬) ও প্রতিবেশি মনসুর রহমান (৪৫)। 

আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার রাতে এশার নাজামের আগে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে ২০ জনের নামে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এজাহারভুক্ত ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে।  

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত হাবিলের পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশি সেফাতুল্লাহর বিরোধ চলছিল একটি জমি নিয়ে। দুই পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা মোকদ্দমাও আছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে হাবিল ও তার ছেলে পানবরজের কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় সেফাতুল্লাহ ও তার পক্ষের লোকেরা গতিরোধ করেন। তবে ওই সময় গ্রামবাসী দুই পক্ষকে সংঘর্ষ থেকে নিবৃত্ত করেন। 

এদিকে ইফতারির কিছুক্ষণ পর কাজী হাবিল উদ্দিন মসজিদে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। এ সময় সেফাতুল্লাহ ও তার ছেলে, ভাই ভাতিজাসহ লাটিসেটা নিয়ে হাবিলের ওপর হামলা করে। তারা ঘটনাস্থলেই হাবিলকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেন। হাবিলকে বাঁচাতে তার বাবা, ছেলে, ভাতিজা ও গ্রামবাসী এগিয়ে এলে তাদের ওপরও হামলা করে সেফাতুল্লাহর লোকেরা। 

হাবিলকে উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ যুগান্তরকে জানিয়েছেন, হাবিল হত্যার অভিযোগে রাতেই নিহতের ভাই হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে ২০ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এজাহারভুক্ত ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছেন। 

গ্রেফতাররা হলেন- আকলিমা বেগম, আলেফা বেগম, ফাহিমা বেগম ও মাহবুবুর রহমান। আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে নিহত হাবিলের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে শুক্রবার দুপুরে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন