বিদ্যুতের তারে দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকা যুবক জীবিত উদ্ধার, পরে মৃত্যু
jugantor
বিদ্যুতের তারে দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকা যুবক জীবিত উদ্ধার, পরে মৃত্যু

  রংপুর ব্যুরো  

২৬ এপ্রিল ২০২১, ১৮:২৩:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

বিদ্যুতের তারে দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকা যুবক জীবিত উদ্ধার, পরে মৃত্যু

রংপুর নগরীর করণজাই রোড এলাকায় একটি বিদ্যুতের খুঁটির তারে প্রায় দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকার পর এক যুবককে জীবিত উদ্ধার করা হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সোমবার ভোরে সাড়ে ৪টায় নগরীর করণজাই ব্রিজের কাছে এ ঘটনাটি ঘটেছে। হাই ভোল্টেজবিদ্যুতের তারে ঝুলে থাকা ওই যুবক আজিজুল ইসলামের শরীরের ৮০ ভাগ পুড়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, ফজরের নামাজের সময় হঠাৎ বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে বাহিরে বের হয়ে তারা বিদ্যুতের খুঁটিতে আগুন দেখতে পান। কাছে গিয়ে তারে আটকা পড়া এক যুবককে দেখে ফায়ার সার্ভিস ও বিদ্যুৎ অফিসে খবর দেন। পরে ফায়ার সার্ভিস এবং বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

কিন্তু প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি ও উদ্ধার কর্মীরা আসতে দেরি হওয়ায় দেড় ঘণ্টার বেশি সময় তারে ঝুলন্ত থাকতে হয় আজিজুলকে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

রংপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক একেএম শামসুজ্জোহা জানান, কী ভাবে ওই যুবক তারে আটকা পরেছে তা জানা যায়নি। আজিজুল জীবিত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়। তার শরীরের বেশির ভাগ অংশই পুড়ে গেছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, ধারনা করা হচ্ছে ওই যুবক নেশায় আসক্ত ছিল। সে কারণে বিদ্যুতের তার চুরি করতে গিয়ে ওই দুর্ঘটনার শিকার হন আজিজুল।

বিদ্যুতের তারে দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকা যুবক জীবিত উদ্ধার, পরে মৃত্যু

 রংপুর ব্যুরো 
২৬ এপ্রিল ২০২১, ০৬:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিদ্যুতের তারে দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকা যুবক জীবিত উদ্ধার, পরে মৃত্যু
ছবি সংগৃহীত

রংপুর নগরীর করণজাই রোড এলাকায় একটি বিদ্যুতের খুঁটির তারে প্রায় দেড় ঘণ্টা ঝুলে থাকার পর এক যুবককে জীবিত উদ্ধার করা হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সোমবার ভোরে সাড়ে ৪টায় নগরীর করণজাই ব্রিজের কাছে এ ঘটনাটি ঘটেছে। হাই ভোল্টেজ বিদ্যুতের তারে ঝুলে থাকা ওই যুবক আজিজুল ইসলামের শরীরের ৮০ ভাগ পুড়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, ফজরের নামাজের সময় হঠাৎ বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে বাহিরে বের হয়ে তারা বিদ্যুতের খুঁটিতে আগুন দেখতে পান। কাছে গিয়ে তারে আটকা পড়া এক যুবককে দেখে ফায়ার সার্ভিস ও বিদ্যুৎ অফিসে খবর দেন। পরে ফায়ার সার্ভিস এবং বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

কিন্তু প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি ও উদ্ধার কর্মীরা আসতে দেরি হওয়ায় দেড় ঘণ্টার বেশি সময় তারে ঝুলন্ত থাকতে হয় আজিজুলকে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

রংপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক একেএম শামসুজ্জোহা জানান, কী ভাবে ওই যুবক তারে আটকা পরেছে তা জানা যায়নি। আজিজুল জীবিত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়। তার শরীরের বেশির ভাগ অংশই পুড়ে গেছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, ধারনা করা হচ্ছে ওই যুবক নেশায় আসক্ত ছিল। সে কারণে বিদ্যুতের তার চুরি করতে গিয়ে ওই দুর্ঘটনার শিকার হন আজিজুল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন