পাওনা টাকা চাওয়ায় মা-ছেলেকে মারধর
jugantor
পাওনা টাকা চাওয়ায় মা-ছেলেকে মারধর

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

৩০ এপ্রিল ২০২১, ২১:৫৩:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

পাওনা টাকা চাইতে গেলে মা হাসিনা বেগম ও ছেলে জুয়েলকে নিজাম হাওলাদারের চার ছেলে অলিদ, মিঠু, তৌহিদ ও জুয়েল মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হলদিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত মা হাসিনা বেগম ও ছেলে জুয়েলকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার তক্তাবুনিয়া গ্রামের নিজাম হাওলাদারের ছেলে অলিদ একই এলাকার জুয়েলের কাছ থেকে ৪৫০ টাকা ধার নেয়। ওই টাকা বৃহস্পতিবার বিকালে জুয়েল চাইতে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয় অলিদ।

ওইদিন সন্ধ্যায় জুয়েল ও তার মা হাসিনা হলদিয়া বাজারে গেলে অলিদ ও তার অপর তিন ভাই মিঠু, তৌহিদ ও জুয়েল মা হাসিনা ও ছেলে জুয়েলকে মারধর করে। এতে মা ও ছেলে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আহত জুয়েল বলেন, পাওনা টাকা চাইতে গেলে নিজাম হাওলাদারের চার ছেলে অলিদ, মিঠু, জুয়েল ও তৌহিদ আমাকে ও আমার মাকে মারধর করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অলিদ মারধরের কথা অস্বীকার করে বলেন, একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সাইদি সোহাগ বলেন, আহতদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাওনা টাকা চাওয়ায় মা-ছেলেকে মারধর

 আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
৩০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাওনা টাকা চাইতে গেলে মা হাসিনা বেগম ও ছেলে জুয়েলকে নিজাম হাওলাদারের চার ছেলে অলিদ, মিঠু, তৌহিদ ও জুয়েল মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হলদিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত মা হাসিনা বেগম ও ছেলে জুয়েলকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার তক্তাবুনিয়া গ্রামের নিজাম হাওলাদারের ছেলে অলিদ একই এলাকার জুয়েলের কাছ থেকে ৪৫০ টাকা ধার নেয়। ওই টাকা বৃহস্পতিবার বিকালে জুয়েল চাইতে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয় অলিদ।

ওইদিন সন্ধ্যায় জুয়েল ও তার মা হাসিনা হলদিয়া বাজারে গেলে অলিদ ও তার অপর তিন ভাই মিঠু, তৌহিদ ও জুয়েল মা হাসিনা ও ছেলে জুয়েলকে মারধর করে। এতে মা ও ছেলে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আহত জুয়েল বলেন, পাওনা টাকা চাইতে গেলে নিজাম হাওলাদারের চার ছেলে অলিদ, মিঠু, জুয়েল ও তৌহিদ আমাকে ও আমার মাকে মারধর করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অলিদ মারধরের কথা অস্বীকার করে বলেন, একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সাইদি সোহাগ বলেন, আহতদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন