দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে দিল বগুড়া ছাত্রলীগ
jugantor
দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে দিল বগুড়া ছাত্রলীগ

  বগুড়া ব্যুরো  

৩০ এপ্রিল ২০২১, ২২:০৪:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা শুক্রবার সকালে সদরের সাবগ্রাম ইউনিয়নের খিদ্রধামা এলাকায় দরিদ্র কৃষক আলমগীর হোসেনের ৪০ শতক জমির বোরো ধান কেটে দিয়েছেন।

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানান, সদর উপজেলার সাবগ্রাম ইউনিয়নের খিদ্রধামা গ্রামের দরিদ্র কৃষক আলমগীর হোসেন ৪০ শতক জমিতে বোরো ধান চাষাবাদ করেন। সম্প্রতি ধান পাকলেও তিনি মজুরির অভাবে ধান ঘরে তুলতে পারছিলেন না।

কালবৈশাখী ঝড়-বৃষ্টিতে ধান নষ্ট হওয়ার আশংকায় ছিলেন। এমন খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা কৃষকের বাড়িতে যান। তারা কৃষকের অনুমতি নিয়ে ধান কেটে ও মাড়াই করে তার ঘরে পৌঁছে দেন।

কৃষক আলমগীর হোসেন জানান, ছাত্রলীগের নেতারা এগিয়ে না এলে অর্থাভাবে ধান ঘরে তুলতে পারতেন না। তার জমি থেকে ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দেওয়ায় তিনি নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

ধান কাটার সময় জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী সেলিম রেজা, ইউসুফ, জ্বীম, আহাদম মোমিন, রবিউল, রায়হান, শহর ছাত্রলীগ নেতা শামীম ফরহাদ, শাহরিন, সরকারি শাহ্ সুলতান কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রব্বানি হোসেন, ফজলে রাব্বী, শুভ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আমরা দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে মাড়াই অব্যাহত রেখেছি। এর আগে সাবগ্রামের চান্দপাড়ায় এক কৃষকের জমির পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন। এছাড়া করোনা প্রতিরোধে হ্যান্ডস্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করেছেন। দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন।

দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে দিল বগুড়া ছাত্রলীগ

 বগুড়া ব্যুরো 
৩০ এপ্রিল ২০২১, ১০:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা শুক্রবার সকালে সদরের সাবগ্রাম ইউনিয়নের খিদ্রধামা এলাকায় দরিদ্র কৃষক আলমগীর হোসেনের ৪০ শতক জমির বোরো ধান কেটে দিয়েছেন।

বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানান, সদর উপজেলার সাবগ্রাম ইউনিয়নের খিদ্রধামা গ্রামের দরিদ্র কৃষক আলমগীর হোসেন ৪০ শতক জমিতে বোরো ধান চাষাবাদ করেন। সম্প্রতি ধান পাকলেও তিনি মজুরির অভাবে ধান ঘরে তুলতে পারছিলেন না।

কালবৈশাখী ঝড়-বৃষ্টিতে ধান নষ্ট হওয়ার আশংকায় ছিলেন। এমন খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলামের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা কৃষকের বাড়িতে যান। তারা কৃষকের অনুমতি নিয়ে ধান কেটে ও মাড়াই করে তার ঘরে পৌঁছে দেন।

কৃষক আলমগীর হোসেন জানান, ছাত্রলীগের নেতারা এগিয়ে না এলে অর্থাভাবে ধান ঘরে তুলতে পারতেন না। তার জমি থেকে ধান কেটে মাড়াই করে ঘরে তুলে দেওয়ায় তিনি নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

ধান কাটার সময় জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী সেলিম রেজা, ইউসুফ, জ্বীম, আহাদম মোমিন, রবিউল, রায়হান, শহর ছাত্রলীগ নেতা শামীম ফরহাদ, শাহরিন, সরকারি শাহ্ সুলতান কলেজ ছাত্রলীগ নেতা রব্বানি হোসেন, ফজলে রাব্বী, শুভ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আমরা দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে মাড়াই অব্যাহত রেখেছি। এর আগে সাবগ্রামের চান্দপাড়ায় এক কৃষকের জমির পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন। এছাড়া করোনা প্রতিরোধে হ্যান্ডস্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করেছেন। দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন