পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেয়ায় কলেজছাত্রীর ‘আত্মহত্যা’
jugantor
পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেয়ায় কলেজছাত্রীর ‘আত্মহত্যা’

  ফরিদপুর ব্যুরো  

৩০ এপ্রিল ২০২১, ২২:১১:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুর বোয়ালমারী উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নে পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেয়ায় বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে আরজিনা আক্তার বৃষ্টি (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। বৃষ্টি নবকাম পল্লী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী ও বোয়ালমারীর সুতালিয়া গ্রামের খোকন মোল্যার মেয়ে।

নিহতের আত্মীয় রিপন মোল্যা জানান, আরজিনা ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলায় অবস্থিত নবকাম পল্লী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক ২য় বর্ষের ছাত্রী। সম্প্রতি তার বিয়ের বিষয়ে কথাবার্তা হচ্ছিল। কিন্তু বাবা-মা তার পছন্দের ছেলেকে অগ্রাহ্য করে অন্য ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিতে চেয়েছিলেন।

এ নিয়ে বুধবার বাবা-মায়ের সঙ্গে আরজিনার কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বসতঘরের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস নেয় সে। পরিবারের লোকেরা টের পেয়ে আরজিনাকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সরোয়ার হোসেন খান বলেন, মেয়েটিকে যখন হাসপাতালে আনা হয়, তখন আমরা তাকে মৃত হিসেবে পাই। পরে বোয়ালমারী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বোয়ালমারী থানায় নিয়ে আসে।

বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, পরিবারের আবেদনের ভিত্তিতে এবং আত্মহত্যার বিষয়ে কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ ময়নাতদন্ত না করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেয়ায় কলেজছাত্রীর ‘আত্মহত্যা’

 ফরিদপুর ব্যুরো 
৩০ এপ্রিল ২০২১, ১০:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুর বোয়ালমারী উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নে পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেয়ায় বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিমান করে আরজিনা আক্তার বৃষ্টি (১৮) নামে এক কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। বৃষ্টি নবকাম পল্লী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী ও বোয়ালমারীর সুতালিয়া গ্রামের খোকন মোল্যার মেয়ে।

নিহতের আত্মীয় রিপন মোল্যা জানান, আরজিনা ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলায় অবস্থিত নবকাম পল্লী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক ২য় বর্ষের ছাত্রী। সম্প্রতি তার বিয়ের বিষয়ে কথাবার্তা হচ্ছিল। কিন্তু বাবা-মা তার পছন্দের ছেলেকে অগ্রাহ্য করে অন্য ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিতে চেয়েছিলেন।

এ নিয়ে বুধবার বাবা-মায়ের সঙ্গে আরজিনার কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বসতঘরের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস নেয় সে। পরিবারের লোকেরা টের পেয়ে আরজিনাকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সরোয়ার হোসেন খান বলেন, মেয়েটিকে যখন হাসপাতালে আনা হয়, তখন আমরা তাকে মৃত হিসেবে পাই। পরে বোয়ালমারী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বোয়ালমারী থানায় নিয়ে আসে।

বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, পরিবারের আবেদনের ভিত্তিতে এবং আত্মহত্যার বিষয়ে কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ ময়নাতদন্ত না করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন