করোনা জয় করলেন বিচারক সাকিব দম্পতি
jugantor
করোনা জয় করলেন বিচারক সাকিব দম্পতি

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

৩০ এপ্রিল ২০২১, ২২:১২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসকে জয় করেছেন বরগুনার আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাকিব হোসেন ও তার স্ত্রী সানজিদা আক্তার। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের কোভিড-১৯ এর রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মোনায়েম সাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ৩ এপ্রিল আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাকিব হোসেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা নমুনা দেন। পরের দিন ৪ এপ্রিল তার স্ত্রী মোসা. সানজিদা আক্তার একই উপসর্গ নিয়ে ওই হাসপাতালে নমুনা দেন। গত ৫ এপ্রিল তাদের নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ আছে তারা উভয়ই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।

আক্রান্তের পর থেকে তারা বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২৪ এপ্রিল তারা আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুনরায় নমুনা দেন। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে আসে। ওই প্রতিবেদনে তাদের কোভিড-১৯ নেগেটিভ উল্লেখ করা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিএসআই মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে স্যারের করোনা নমুনা প্রতিবেদন এসেছে। ওই প্রতিবেদনে তাদের প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নেগেটিভ এসেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোনায়েম সাদ বলেন, উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ও তার স্ত্রী করোনা নেগেটিভ হয়েছেন। তারা সম্পূর্ণ সুস্থ।

করোনা জয় করলেন বিচারক সাকিব দম্পতি

 আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
৩০ এপ্রিল ২০২১, ১০:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসকে জয় করেছেন বরগুনার আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাকিব হোসেন ও তার স্ত্রী সানজিদা আক্তার। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের কোভিড-১৯ এর রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মোনায়েম সাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ৩ এপ্রিল আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সাকিব হোসেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা নমুনা দেন। পরের দিন ৪ এপ্রিল তার স্ত্রী মোসা. সানজিদা আক্তার একই উপসর্গ নিয়ে ওই হাসপাতালে নমুনা দেন। গত ৫ এপ্রিল তাদের নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ আছে তারা উভয়ই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।

আক্রান্তের পর থেকে তারা বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২৪ এপ্রিল তারা আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুনরায় নমুনা দেন। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের নমুনা প্রতিবেদন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে আসে। ওই প্রতিবেদনে তাদের কোভিড-১৯ নেগেটিভ উল্লেখ করা হয়েছে।

আমতলী উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিএসআই মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে স্যারের করোনা নমুনা প্রতিবেদন এসেছে। ওই প্রতিবেদনে তাদের প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নেগেটিভ এসেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোনায়েম সাদ বলেন, উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ও তার স্ত্রী করোনা নেগেটিভ হয়েছেন। তারা সম্পূর্ণ সুস্থ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন