এবার খণ্ডিত লাশের মাথা মিলল পুকুরপাড়ে
jugantor
এবার খণ্ডিত লাশের মাথা মিলল পুকুরপাড়ে

  দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০২ মে ২০২১, ১৭:৩৮:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের মঙ্গলপুর বিল থেকে মস্তকবিহীন অজ্ঞাত ব্যক্তির দ্বিখণ্ডিত ভাসমান লাশ উদ্ধারের একদিন পর মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিলের পাশে একটি পুকুরের পাড় থেকে লাশের মাথা উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ লাশের মাথা উদ্ধার করতে পারলেও এখনো লাশের পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি। তবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) আবু সুফিয়ান বলছেন, সিআইডির লোকজন আসছে, লাশ শনাক্তের প্রক্রিয়া চলছে। ইতোমধ্যে ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়া হয়েছে।

দিরাই থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, এটা নৃশংস একটি হত্যাকাণ্ড। খুনিরা নৃশংসভাবে হাত, পা, মাথা ও বডি বিচ্ছিন্ন করে লাশকে চার খণ্ড করে ফেলে দেয়। লাশ শনাক্তের আগ পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, শনিবার রাত ১০টার দিকে মঙ্গলপুর বিলে দুটি স্থান থেকে এক ব্যক্তির হাত পা এবং আরেকটি স্থানে পুরো বডির দ্বিখণ্ডিত ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, বিলে একটি লাশ ভেসে উঠতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়, খবর পেয়ে দিরাই থানার ওসি মো. আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে দ্বিখণ্ডিত লাশটি উদ্ধার করে। তবে লাশের কোনো পরিচয় জানা যায়নি।

লাশটির শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে এবং লাশে দুর্গন্ধ থাকায় পুলিশ ধারণা করছে ওই ব্যক্তিকে ৪-৫ দিন আগে কেউ হত্যা করে এই বিলে ফেলে দিয়ে থাকতে পারে। তবে দ্বিখণ্ডিত লাশ দেখে অনুমান করা হচ্ছে এটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার থেকে মঙ্গলপুর গ্রামের জনৈক দুদু মিয়া নামের জনৈক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ দুদু মিয়ার স্ত্রী পারভিনের দাবি উদ্ধারকৃত লাশটি তার স্বামীর। লাশের খণ্ডিত পায়ের অংশ দেখে তিনি বলেন, আমার স্বামীর একটি পা বাঁকা ছিল তাই আমি নিশ্চিত লাশটি আমার স্বামীরই হবে।

এবার খণ্ডিত লাশের মাথা মিলল পুকুরপাড়ে

 দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০২ মে ২০২১, ০৫:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের মঙ্গলপুর বিল থেকে মস্তকবিহীন অজ্ঞাত ব্যক্তির দ্বিখণ্ডিত ভাসমান লাশ উদ্ধারের একদিন পর মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিলের পাশে একটি পুকুরের পাড় থেকে লাশের মাথা উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ লাশের মাথা উদ্ধার করতে পারলেও এখনো লাশের পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি। তবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) আবু সুফিয়ান বলছেন, সিআইডির লোকজন আসছে, লাশ শনাক্তের প্রক্রিয়া চলছে। ইতোমধ্যে ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়া হয়েছে।

দিরাই থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, এটা নৃশংস একটি হত্যাকাণ্ড। খুনিরা নৃশংসভাবে হাত, পা, মাথা ও বডি বিচ্ছিন্ন করে লাশকে চার খণ্ড করে ফেলে দেয়। লাশ শনাক্তের আগ পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, শনিবার রাত ১০টার দিকে মঙ্গলপুর বিলে দুটি স্থান থেকে এক ব্যক্তির হাত পা এবং আরেকটি স্থানে পুরো বডির দ্বিখণ্ডিত ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, বিলে একটি লাশ ভেসে উঠতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়, খবর পেয়ে দিরাই থানার ওসি মো. আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে দ্বিখণ্ডিত লাশটি উদ্ধার করে। তবে লাশের কোনো পরিচয় জানা যায়নি।

লাশটির শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে এবং লাশে দুর্গন্ধ থাকায় পুলিশ ধারণা করছে ওই ব্যক্তিকে ৪-৫ দিন আগে কেউ হত্যা করে এই বিলে ফেলে দিয়ে থাকতে পারে। তবে দ্বিখণ্ডিত লাশ দেখে অনুমান করা হচ্ছে এটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার থেকে মঙ্গলপুর গ্রামের জনৈক দুদু মিয়া নামের জনৈক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ দুদু মিয়ার স্ত্রী পারভিনের দাবি উদ্ধারকৃত লাশটি তার স্বামীর। লাশের খণ্ডিত পায়ের অংশ দেখে তিনি বলেন, আমার স্বামীর একটি পা বাঁকা ছিল তাই আমি নিশ্চিত লাশটি আমার স্বামীরই হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন