বাবা-মাকে দেওয়া কথা রাখতে পারলেন না যুবলীগ নেতা
jugantor
বাবা-মাকে দেওয়া কথা রাখতে পারলেন না যুবলীগ নেতা

  রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

০৩ মে ২০২১, ২২:৫৫:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

মা ও বাবাকে কথা দিয়েছিলেন ফিরে এসে একসঙ্গে তারাবির নামাজ পড়বেন। তবে সে কথা রাখতে পারেননি যুবলীগ নেতা আরেফির রাজু (২৪)। তিনি বাড়ি ফিরেছেন বটে, তবে লাশ হয়ে।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-খাসেরহাট সড়কের চরমোহনা ইউনিয়নের কাজির মাদ্রাসা এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘনায় নিহত হন রাজু।

নিহত আরেফিন রাজু (২৪) স্থানীয়ভাবে ইলেকট্রিক কর্মের সঙ্গে জড়িত। তিনি চরমোহনা ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রিকশাচালক আনোয়ার উল্যার ছেলে। আরেফিন রাজু ওই ওয়ার্ডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, রাজু বাড়িতে ইফতার ও নিজের বাড়ির মসজিদে নামাজ পড়ে রায়পুর শহরের উদ্দেশ্যে মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় বের হন। বাবা ও মাকে বলে যান বাড়িতে এসে তারাবির নামাজ পড়বেন।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, রাজু মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তার উঠে। তার পাশাপাশি অন্য একটি মোটরসাইকেল যাচ্ছিল। সাইট দিতে অসাবধানতাবসত নিজের মোটরসাইকেল ব্রেক করেন তিনি। এতে মোটরসাইকেলটি উল্টে গিয়ে আরেফিন রাজু গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক তারেক আজিজ জনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আরেফিনের মৃত্যুর ঘটনা দুঃখজনক। তার মৃত্যুতে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করছি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাবা-মাকে দেওয়া কথা রাখতে পারলেন না যুবলীগ নেতা

 রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
০৩ মে ২০২১, ১০:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মা ও বাবাকে কথা দিয়েছিলেন ফিরে এসে একসঙ্গে তারাবির নামাজ পড়বেন। তবে সে কথা রাখতে পারেননি যুবলীগ নেতা আরেফির রাজু (২৪)। তিনি বাড়ি ফিরেছেন বটে, তবে লাশ হয়ে।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-খাসেরহাট সড়কের চরমোহনা ইউনিয়নের কাজির মাদ্রাসা এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘনায় নিহত হন রাজু।

নিহত আরেফিন রাজু (২৪) স্থানীয়ভাবে ইলেকট্রিক কর্মের সঙ্গে জড়িত। তিনি চরমোহনা ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের রিকশাচালক আনোয়ার উল্যার ছেলে। আরেফিন রাজু ওই ওয়ার্ডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, রাজু বাড়িতে ইফতার ও নিজের বাড়ির মসজিদে নামাজ পড়ে রায়পুর শহরের উদ্দেশ্যে মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় বের হন। বাবা ও মাকে বলে যান বাড়িতে এসে তারাবির নামাজ পড়বেন।

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, রাজু মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তার উঠে। তার পাশাপাশি অন্য একটি মোটরসাইকেল যাচ্ছিল। সাইট দিতে অসাবধানতাবসত নিজের মোটরসাইকেল ব্রেক করেন তিনি। এতে মোটরসাইকেলটি উল্টে গিয়ে আরেফিন রাজু গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক তারেক আজিজ জনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আরেফিনের মৃত্যুর ঘটনা দুঃখজনক। তার মৃত্যুতে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করছি।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। পরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন