দুর্গাপুরে সরকারি চোরাই পাথর আটক
jugantor
দুর্গাপুরে সরকারি চোরাই পাথর আটক
মামলা ও জরিমানা আদায়

  দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

০৪ মে ২০২১, ১৪:৫০:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার সোমেশ্বরী নদীর বিভিন্ন বালুমহাল থেকে স্তূপ করা পাথর সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাতের আঁধারে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে একটি চক্র।

এমনই এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে বিরিশিরি ২নং বালুমহাল থেকে পাঁচটি ট্রাকসহ পাথর আটক করা হয়।

জানা গেছে, সোমেশ্বরী নদীতে পাঁচটি বালুমহাল রয়েছে। এর মধ্যে এক বছরের জন্য পাঁচটি ঘাটের শুধু বালু উত্তোলনের জন্য ইজারা দেওয়া হলেও বালুর সঙ্গে উত্তোলিত পাথর কোনো ইজারা না দেওয়ায় সেগুলো সরকারি হাওলাতেই থেকে যায়।

উত্তোলিত পাথরগুলো বছরের কোনো একসময় উপজেলা প্রশাসন সরকারিভাবে নিলামে বিক্রি করেন। ইতোমধ্যে ইজারাকৃত বালুমহাল থেকে জমাকৃত পাথরগুলো রাতের আঁধারে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে পাথরখেকো চক্র।

এমন সংবাদ যুগান্তরসহ নানা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে সক্রিয় হয়ে ওঠে উপজেলা প্রশাসন। এরই প্রেক্ষিতে সোমবার গভীর রাতে পাথরখেকো চক্র ৫টি ট্রাকযোগে সরকারি পাথর নিচ্ছে— এমন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রুয়েল সাংমার নেতৃত্বে দুর্গাপুর থানা পুলিশের সহায়তায় পাথরগুলো জব্দ করা হয় এবং মামলা দিয়ে ৫টি গাড়ি থেকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়।

দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব-উল-আহসান এ যুগান্তরকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিরিশিরি সেতু এলাকা থেকে চোরাইকৃত পাঁচ গাড়ি সরকারি পাথর আটক করা হয়। পরিবহন আইনে চালকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

দুর্গাপুরে সরকারি চোরাই পাথর আটক

মামলা ও জরিমানা আদায়
 দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
০৪ মে ২০২১, ০২:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার সোমেশ্বরী নদীর বিভিন্ন বালুমহাল থেকে স্তূপ করা পাথর সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাতের আঁধারে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে একটি চক্র।

এমনই এক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে বিরিশিরি ২নং বালুমহাল থেকে পাঁচটি ট্রাকসহ পাথর আটক করা হয়।

জানা গেছে, সোমেশ্বরী নদীতে পাঁচটি বালুমহাল রয়েছে।  এর মধ্যে এক বছরের জন্য পাঁচটি ঘাটের শুধু বালু উত্তোলনের জন্য ইজারা দেওয়া হলেও বালুর সঙ্গে উত্তোলিত পাথর কোনো ইজারা না দেওয়ায় সেগুলো সরকারি হাওলাতেই থেকে যায়।

উত্তোলিত পাথরগুলো বছরের কোনো একসময় উপজেলা প্রশাসন সরকারিভাবে নিলামে বিক্রি করেন। ইতোমধ্যে ইজারাকৃত বালুমহাল থেকে জমাকৃত পাথরগুলো রাতের আঁধারে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে পাথরখেকো চক্র।

এমন সংবাদ যুগান্তরসহ নানা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে সক্রিয় হয়ে ওঠে উপজেলা প্রশাসন। এরই প্রেক্ষিতে সোমবার গভীর রাতে পাথরখেকো চক্র ৫টি ট্রাকযোগে সরকারি পাথর নিচ্ছে— এমন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রুয়েল সাংমার নেতৃত্বে দুর্গাপুর থানা পুলিশের সহায়তায় পাথরগুলো জব্দ করা হয় এবং মামলা দিয়ে ৫টি গাড়ি থেকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়।

দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব-উল-আহসান এ যুগান্তরকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিরিশিরি সেতু এলাকা থেকে চোরাইকৃত পাঁচ গাড়ি সরকারি পাথর আটক করা হয়। পরিবহন আইনে চালকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে এক লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।  এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন