বিএনপি নেতাকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা, ৯৯৯ এ ফোন করে রক্ষা
jugantor
বিএনপি নেতাকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা, ৯৯৯ এ ফোন করে রক্ষা

  লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

০৪ মে ২০২১, ১৭:৪৩:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

লাকসাম পৌরসভা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মনির আহমেদকে মধ্য রাতে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। পরে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে রক্ষা পান তিনি। এ ঘটনায় তিনি সোমবার লাকসাম থানায় অভিযোগ করেন।

দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে মনির আহমেদের পৌরসভার নশেতপুর এলাকায় বসত ঘরে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দরজা খুলতে বলে কয়েকজন দুর্বৃত্ত। মনির দরজা না খুলে জানালা খুলে তাদেরকে জানালার সামনে আসতে বলেন। কিন্তু ওরা জানালার পাশে না এসে মনিরকে দরজা খুলতে হুমকি ধমকি দিতে থাকে।

আতঙ্কিত হয়ে মনির তখন ৯৯৯ ফোন দিয়ে সহায়তা কামনা করেন। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই লাকসাম থানার পুলিশের সদস্যরা মনিরের বাড়িতে উপস্থিত হন। এর মধ্যে দুর্বৃত্তরা বাড়ির পিছন দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে মনিরের সাথে তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার কারণে এর আগেও একাধিকবার আমাকে নানান ভাবে হুমকি ধমকি দেয়া হয়েছে। রোববার দিবাগত রাতে যারা আমার বাড়িতে এসেছে তারাও আমাকে হত্যা কিংবা গুম করার উদ্দেশ্যেই এসেছে। তাৎক্ষনিক আমি ৯৯৯ জরুরি সেবায় ফোন দিয়ে লাকসাম থানা পুলিশের সহায়তায় রক্ষা পাই। বিষয়টি নিয়ে সোমবার দুপুরে আমি লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাত করে অভিযোগ দায়ের করি। আমার বিশ্বাস তিনি আমার অভিযোগটি অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন।

লাকসাম থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গেলেও সত্যতা পাওয়া যায়নি। থানায় অভিযোগ জমা দেওয়ার বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেন।

বিএনপি নেতাকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা, ৯৯৯ এ ফোন করে রক্ষা

 লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
০৪ মে ২০২১, ০৫:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লাকসাম পৌরসভা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক মনির আহমেদকে মধ্য রাতে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। পরে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে রক্ষা পান তিনি। এ ঘটনায় তিনি সোমবার  লাকসাম থানায় অভিযোগ করেন।

দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে মনির আহমেদের পৌরসভার নশেতপুর এলাকায় বসত ঘরে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দরজা খুলতে বলে কয়েকজন দুর্বৃত্ত। মনির দরজা না খুলে জানালা খুলে তাদেরকে জানালার সামনে আসতে বলেন। কিন্তু ওরা জানালার পাশে না এসে মনিরকে দরজা খুলতে হুমকি ধমকি দিতে থাকে।

আতঙ্কিত হয়ে মনির তখন ৯৯৯ ফোন দিয়ে সহায়তা কামনা করেন। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই লাকসাম থানার পুলিশের সদস্যরা মনিরের বাড়িতে উপস্থিত হন। এর মধ্যে দুর্বৃত্তরা বাড়ির পিছন দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে মনিরের সাথে তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,  রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার কারণে এর আগেও একাধিকবার আমাকে নানান ভাবে হুমকি ধমকি দেয়া হয়েছে।  রোববার দিবাগত রাতে যারা আমার বাড়িতে এসেছে তারাও আমাকে হত্যা কিংবা গুম করার উদ্দেশ্যেই এসেছে। তাৎক্ষনিক আমি ৯৯৯ জরুরি সেবায় ফোন দিয়ে লাকসাম থানা পুলিশের সহায়তায় রক্ষা পাই। বিষয়টি নিয়ে সোমবার দুপুরে আমি লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাত করে অভিযোগ দায়ের করি। আমার বিশ্বাস তিনি আমার অভিযোগটি অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন।

লাকসাম থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গেলেও সত্যতা পাওয়া যায়নি। থানায় অভিযোগ জমা দেওয়ার বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন