চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় হামলা, আহত ৫
jugantor
চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় হামলা, আহত ৫

  মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি  

০৪ মে ২০২১, ২০:২৫:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের মুলাদীতে চরকালেখান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খানের বিরুদ্ধে জেলেদের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনিয়মের প্রতিবাদ করায় চেয়ারম্যানের লোকজন প্রতিবাদকারীদের ওপর হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ৫ জনকে আহত করেছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার চরকালেখান নোমরহাট বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। চরকালেখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জানে আলম মৃধা জানান, চরকালেখান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খান সোমবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলেদের মাঝে তিন মাসের চাল বিতরণ করেন। ওই সময় তিনি প্রকৃত কার্ডধারী জেলেদের বঞ্চিত করে তার নিজস্ব লোকজনদের মাঝে চাল বিতরণ করেন বলে অভিযোগ উঠে।

ফলে প্রকৃত জেলেরা তাদের প্রাপ্য চাল থেকে বঞ্চিত হয়। জেলে কার্ড ছাড়া জনৈক জাহাঙ্গীর হোসেন চাল নিয়ে বাড়িতে রওনা করলে কার্ডধারী বঞ্চিত জেলেরা তাকে আটক করে। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে গেলে তিনি তাদের কথা কর্ণপাত না করে তার অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বের দেন।

পরে বিক্ষুব্ধ জেলে ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম মিলন মোল্লা জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিক্ষোভকারী জেলেদের কয়েকজন চরকালেখান নোমরহাট বাজারে গেলে আক্তার হাওলাদার, আক্তার সরদার, রুস্তুম সরদারসহ ইউপি চেয়ারম্যানের লোকজন জেলেদের ওপর হামলা চালায়।

এ সময় পথচারী শুক্কুর সরদার, জেলে জাকির হোসেন, জামাল হোসেনসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হন। স্থানীয়রা আহত শুক্কুর সরদারকে উদ্ধার করে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

এ ব্যাপারে চরকালেখান ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খান জানান, জেলে কার্ড ছাড়া শ্রমিক জাহাঙ্গীর হোসেনকে এক বস্তা চাল দেওয়া হয়েছিল। বিষয়টিকে পুঁজি করে স্থানীয় একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। তবে আমার কোনো লোক কারও ওপর হামলা করেনি।

চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় হামলা, আহত ৫

 মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি 
০৪ মে ২০২১, ০৮:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের মুলাদীতে চরকালেখান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খানের বিরুদ্ধে জেলেদের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনিয়মের প্রতিবাদ করায় চেয়ারম্যানের লোকজন প্রতিবাদকারীদের ওপর হামলা চালিয়ে কমপক্ষে ৫ জনকে আহত করেছে। 

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার চরকালেখান নোমরহাট বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। চরকালেখান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জানে আলম মৃধা জানান, চরকালেখান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খান সোমবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলেদের মাঝে তিন মাসের চাল বিতরণ করেন। ওই সময় তিনি প্রকৃত কার্ডধারী জেলেদের বঞ্চিত করে তার নিজস্ব লোকজনদের মাঝে চাল বিতরণ করেন বলে অভিযোগ উঠে। 

ফলে প্রকৃত জেলেরা তাদের প্রাপ্য চাল থেকে বঞ্চিত হয়। জেলে কার্ড ছাড়া জনৈক জাহাঙ্গীর হোসেন চাল নিয়ে বাড়িতে রওনা করলে কার্ডধারী বঞ্চিত জেলেরা তাকে আটক করে। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে গেলে তিনি তাদের কথা কর্ণপাত না করে তার অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বের দেন। 

পরে বিক্ষুব্ধ জেলে ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেন। 

যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম মিলন মোল্লা জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিক্ষোভকারী জেলেদের কয়েকজন চরকালেখান নোমরহাট বাজারে গেলে আক্তার হাওলাদার, আক্তার সরদার, রুস্তুম সরদারসহ ইউপি চেয়ারম্যানের লোকজন জেলেদের ওপর হামলা চালায়। 

এ সময় পথচারী শুক্কুর সরদার, জেলে জাকির হোসেন, জামাল হোসেনসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হন। স্থানীয়রা আহত শুক্কুর সরদারকে উদ্ধার করে মুলাদী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। 

এ ব্যাপারে চরকালেখান ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মো. মোহসীন উদ্দীন খান জানান, জেলে কার্ড ছাড়া শ্রমিক জাহাঙ্গীর হোসেনকে এক বস্তা চাল দেওয়া হয়েছিল। বিষয়টিকে পুঁজি করে স্থানীয় একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। তবে আমার কোনো লোক কারও ওপর হামলা করেনি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন