রংপুরে কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল সংগ্রহ
jugantor
রংপুরে কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল সংগ্রহ

  রংপুর ব্যুরো  

০৪ মে ২০২১, ২২:৫৭:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল সংগ্রহ

রংপুরে কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে শুরু হয়েছে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ অভিযান। এজন্য চালের সংগ্রহ মূল্য প্রতি কেজি ৪০ টাকা এবং ধানের ২৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে রংপুর সদর খাদ্যগুদামে ফিতা কেটে বোরো ধান সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. আসিব আহসান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক বলেন, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পরিপত্র অনুযায়ী রংপুর সদর, মিঠাপুকুর ও তারাগঞ্জে কৃষক অ্যাপের মাধ্যমে লটারি করে ধান ক্রয় করা হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধান সংগ্রহে খাদ্য বিভাগ ও প্রশাসন কৃষকদের সহযোগিতা করবে। এছাড়া মিলারদের কাছ থেকে ২৮ হাজার মেট্রিক টনের বেশি চাল ক্রয় করা হবে। সবার সহযোগিতা থাকলে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- রংপুর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আব্দুল কাদের, সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ইসরাত সাদিয়া সুমি, সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অমূল্য কুমার, সদর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আরিফ হোসেন।

এবার রংপুর জেলায় ২৭ টাকা কেজি দরে ১৭ হাজার ৪০৩ মেট্রিক টন ধান ও ৪০ টাকা কেজি দরে ২৮ হাজার মেট্রিক টন চাল ক্রয় করবে খাদ্য বিভাগ। এর মধ্যে রংপুর সদরে বোরো ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ২ হাজার ১২৮ মেট্রিক টন এবং চাল ৪ হাজার ৩৯৫ মেট্রিক টন। সদরে ৭ মে থেকে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত চাল ও ধান সংগ্রহ করা হবে। কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে ধান বিক্রয়ের আবেদনের সময়সীমা ১০ মে পর্যন্ত করা হয়েছে।

রংপুরে কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল সংগ্রহ

 রংপুর ব্যুরো 
০৪ মে ২০২১, ১০:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
অ্যাপসের মাধ্যমে ধান-চাল সংগ্রহ
ফাইল ছবি

রংপুরে কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে শুরু হয়েছে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ অভিযান। এজন্য চালের সংগ্রহ মূল্য প্রতি কেজি ৪০ টাকা এবং ধানের ২৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে রংপুর সদর খাদ্যগুদামে ফিতা কেটে বোরো ধান সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. আসিব আহসান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক বলেন, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পরিপত্র অনুযায়ী রংপুর সদর, মিঠাপুকুর ও তারাগঞ্জে কৃষক অ্যাপের মাধ্যমে লটারি করে ধান ক্রয় করা হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধান সংগ্রহে খাদ্য বিভাগ ও প্রশাসন কৃষকদের সহযোগিতা করবে। এছাড়া মিলারদের কাছ থেকে ২৮ হাজার মেট্রিক টনের বেশি চাল ক্রয় করা হবে। সবার সহযোগিতা থাকলে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- রংপুর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আব্দুল কাদের, সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ইসরাত সাদিয়া সুমি, সদর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অমূল্য কুমার, সদর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আরিফ হোসেন।

এবার রংপুর জেলায় ২৭ টাকা কেজি দরে ১৭ হাজার ৪০৩ মেট্রিক টন ধান ও ৪০ টাকা কেজি দরে ২৮ হাজার মেট্রিক টন চাল ক্রয় করবে খাদ্য বিভাগ। এর মধ্যে রংপুর সদরে বোরো ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ২ হাজার ১২৮ মেট্রিক টন এবং চাল ৪ হাজার ৩৯৫ মেট্রিক টন। সদরে ৭ মে থেকে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত চাল ও ধান সংগ্রহ করা হবে। কৃষক অ্যাপসের মাধ্যমে ধান বিক্রয়ের আবেদনের সময়সীমা ১০ মে পর্যন্ত করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন