বাড়ির পাশের বহেরা গাছে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ
jugantor
বাড়ির পাশের বহেরা গাছে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ

  খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি   

০৫ মে ২০২১, ১৯:১২:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে বাড়ির পাশের বহেরা গাছ থেকে জিপ চালক সমিতির সাবেক সভাপতি এবং কাঠ ব্যবসায়ী আবদুল ছাদেকের (৬০) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, উপজেলার ডাইনছড়ি এলাকার মৃত আলী হোসেন এর মেঝ ছেলে আবদুল ছাদেক কাঠ ব্যবসায়ী। সম্প্রতি উপজেলার বাজারস্থ সাবেক খলিল সাহেব এর টিলায় মুসলিমপাড়ায় স্থায়ী বসবাস গড়ে তোলেন।

বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার পর বাড়ির অদূরে বড় বহেরা গাছে গলায় ফাঁস দেয়া লাশ দেখতে পায় প্রতিবেশীরা। পরে নিহতের স্ত্রী জুলেখা বেগম ও ছেলে ওমর ফারুক (২৫) খবর পেয়ে ঘুম থেকে উঠে কান্নাকাটি শুরু করলে প্রতিবেশীরা বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

নিহতের উদ্ধারকৃত লাশের প্রাথমিক নমুনায় এটি আত্মহত্যা বলে মনে হলেও পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে। এদিকে এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মানিকছড়ি সার্কেল এর সিনিয়র পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, লাশের ধরণ দেখে আপাতত মনে হচ্ছে এটি একটি আত্মহত্যা। তবে নিহতের ব্যবসা, পারিবারিক বিষয়সহ নানা বিষয় মাথায় রেখে আমরা কাজ করছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ক্লু উদঘাটনে পুলিশ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করছে।

বাড়ির পাশের বহেরা গাছে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ

 খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি  
০৫ মে ২০২১, ০৭:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে বাড়ির পাশের বহেরা গাছ থেকে জিপ চালক সমিতির সাবেক সভাপতি এবং কাঠ ব্যবসায়ী আবদুল ছাদেকের (৬০) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, উপজেলার  ডাইনছড়ি  এলাকার মৃত আলী হোসেন এর মেঝ ছেলে  আবদুল ছাদেক কাঠ ব্যবসায়ী। সম্প্রতি উপজেলার বাজারস্থ সাবেক খলিল সাহেব এর টিলায় মুসলিমপাড়ায় স্থায়ী বসবাস গড়ে তোলেন। 

বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার পর বাড়ির অদূরে বড় বহেরা গাছে গলায় ফাঁস দেয়া লাশ দেখতে পায় প্রতিবেশীরা। পরে নিহতের স্ত্রী  জুলেখা বেগম ও ছেলে ওমর ফারুক (২৫) খবর পেয়ে ঘুম থেকে উঠে কান্নাকাটি শুরু করলে প্রতিবেশীরা বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

নিহতের উদ্ধারকৃত লাশের প্রাথমিক নমুনায় এটি আত্মহত্যা বলে মনে হলেও পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে। এদিকে এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। 

মানিকছড়ি সার্কেল এর সিনিয়র পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, লাশের ধরণ দেখে আপাতত মনে হচ্ছে এটি একটি আত্মহত্যা। তবে নিহতের ব্যবসা, পারিবারিক বিষয়সহ নানা বিষয় মাথায় রেখে আমরা কাজ করছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ক্লু উদঘাটনে পুলিশ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন