মিষ্টি নিয়ে গিয়ে ইফতারের সময় ভাবিকে ধর্ষণ
jugantor
মিষ্টি নিয়ে গিয়ে ইফতারের সময় ভাবিকে ধর্ষণ

  বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

০৫ মে ২০২১, ২১:৪৯:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার বেতাগীতে ইফতারের সময় মিষ্টি নিয়ে গিয়ে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী দেবরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়নে সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। পরের দিন মঙ্গলবার বেতাগী থানায় ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে নারী ও শিশু আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর বক্তব্য ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে গ্রামের বাড়িতে থাকেন ওই গৃহবধূ। সোমবার বিকালে গৃহবধূর শাশুড়ি তার বাবার বাড়িতে যান এবং শ্বশুর ইফতার করতে মসজিদে চলে যান।

এ সময় একই এলাকার বাসিন্দা খলিল হাওলাদারের ছেলে নাঈম ওই গৃহবধূর দরজার সামনে এসে ডাক দেন এবং তার বাড়ির ইফতারির অনুষ্ঠানের মিষ্টি হাতে দিয়ে বলেন, ভাবি এটি রেখে আসেন, চাচি আসলে তাকে দিয়েন। ওই গৃহবধূ মিষ্টি নিয়ে ঘরের ভেতরে চলে গেলে নাঈম পেছনে পেছনে ঘরের মধ্যে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ওই গৃহবধূ আরও বলেন, সন্ধ্যার সময় সবাই ইফতারি তৈরিতে ব্যস্ত থাকায় ও পাশাপাশি কোনো ঘর না থাকায় ডাক-চিৎকার দিলেও কেউ শুনতে পায়নি। পরে আমার শ্বশুর মসজিদ থেকে আসলে দরজা বন্ধ দেখে আমাকে ডাক দেন; এ সময় ধর্ষক নাঈম পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। আসামি পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মিষ্টি নিয়ে গিয়ে ইফতারের সময় ভাবিকে ধর্ষণ

 বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
০৫ মে ২০২১, ০৯:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার বেতাগীতে ইফতারের সময় মিষ্টি নিয়ে গিয়ে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী দেবরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়নে সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। পরের দিন মঙ্গলবার বেতাগী থানায় ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে নারী ও শিশু আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর বক্তব্য ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে গ্রামের বাড়িতে থাকেন ওই গৃহবধূ। সোমবার বিকালে গৃহবধূর শাশুড়ি তার বাবার বাড়িতে যান এবং শ্বশুর ইফতার করতে মসজিদে চলে যান।

এ সময় একই এলাকার বাসিন্দা খলিল হাওলাদারের ছেলে নাঈম ওই গৃহবধূর দরজার সামনে এসে ডাক দেন এবং তার বাড়ির ইফতারির অনুষ্ঠানের মিষ্টি হাতে দিয়ে বলেন, ভাবি এটি রেখে আসেন, চাচি আসলে তাকে দিয়েন। ওই গৃহবধূ মিষ্টি নিয়ে ঘরের ভেতরে চলে গেলে নাঈম পেছনে পেছনে ঘরের মধ্যে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ওই গৃহবধূ আরও বলেন, সন্ধ্যার সময় সবাই ইফতারি তৈরিতে ব্যস্ত থাকায় ও পাশাপাশি কোনো ঘর না থাকায় ডাক-চিৎকার দিলেও কেউ শুনতে পায়নি। পরে আমার শ্বশুর মসজিদ থেকে আসলে দরজা বন্ধ দেখে আমাকে ডাক দেন; এ সময় ধর্ষক নাঈম পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। আসামি পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন