শেখ হাসিনা দুঃসাহসিক কাজ করেছেন: মতিয়া চৌধুরী
jugantor
শেখ হাসিনা দুঃসাহসিক কাজ করেছেন: মতিয়া চৌধুরী

  শেরপুর প্রতিনিধি  

০৬ মে ২০২১, ২২:৩০:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা উপলক্ষে আড়াই হাজার করে টাকা বিকাশে পাঠিয়ে সারা বাংলাদেশে দুঃসাহসিক কাজ করেছেন। যেটা অতীতে কেউ সাহস পায় নাই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, জাতীয় সংসদের কৃষি মন্ত্রণালয় বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার তার নিজ নির্বাচনী এলাকা শেরপুরের নালিতাবাড়ীর নয়াবিল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ঈদের শুভেচ্ছা হিসেবে তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে বস্ত্র বিতরণকালে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, বিকাশে আড়াই হাজার টাকা পৌঁছে গেলে একটা মানুষ সুন্দরভাবে ঈদ করতে পারবেন। শেখ হাসিনা সেই ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এটা কেউ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চায় নাই, আবেদনও করে নাই। কলমের কালি খরচ করে দরখাস্ত লেখে নাই। কোনো বক্তৃতাও দেয় নাই। মানুষের মুখ মলিন হলে সে হাসিমুখে ঈদ করতে পারবে না। এটা চিন্তা করে শেখ হাসিনার রাতে ঘুম হয় না। তাই উনি বুদ্ধি বের করে এ টাকা পাঠিয়েছেন। উনি যদি দেশে আইটি সেক্টর চালু না করতেন তাহলে কী বিকাশে টাকা আসতে পারত।

বেগম মতিয়া চৌধুরী বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী তার নিজস্ব তহবিল থেকে নালিতাবাড়ীর ১টি পৌরসভা ও ১২ ইউনিয়নের প্রায় ২ হাজার ৬০০ জন দুস্থ নারীকে একটি করে শাড়ি উপহার হিসেবে প্রদান করেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন- উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হেলেনা পারভিন, পৌর মেয়র আবুবক্কর সিদ্দিক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) আফরোজা নাজনীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া বুলু ছাড়াও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

শেখ হাসিনা দুঃসাহসিক কাজ করেছেন: মতিয়া চৌধুরী

 শেরপুর প্রতিনিধি 
০৬ মে ২০২১, ১০:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা উপলক্ষে আড়াই হাজার করে টাকা বিকাশে পাঠিয়ে সারা বাংলাদেশে দুঃসাহসিক কাজ করেছেন। যেটা অতীতে কেউ সাহস পায় নাই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, জাতীয় সংসদের কৃষি মন্ত্রণালয় বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাবেক কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার তার নিজ নির্বাচনী এলাকা শেরপুরের নালিতাবাড়ীর নয়াবিল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ঈদের শুভেচ্ছা হিসেবে তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে বস্ত্র বিতরণকালে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, বিকাশে আড়াই হাজার টাকা পৌঁছে গেলে একটা মানুষ সুন্দরভাবে ঈদ করতে পারবেন। শেখ হাসিনা সেই ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এটা কেউ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চায় নাই, আবেদনও করে নাই। কলমের কালি খরচ করে দরখাস্ত লেখে নাই। কোনো বক্তৃতাও দেয় নাই। মানুষের মুখ মলিন হলে সে হাসিমুখে ঈদ করতে পারবে না। এটা চিন্তা করে শেখ হাসিনার রাতে ঘুম হয় না। তাই উনি বুদ্ধি বের করে এ টাকা পাঠিয়েছেন। উনি যদি দেশে আইটি সেক্টর চালু না করতেন তাহলে কী বিকাশে টাকা আসতে পারত।

বেগম মতিয়া চৌধুরী বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী তার নিজস্ব তহবিল থেকে নালিতাবাড়ীর ১টি পৌরসভা ও ১২ ইউনিয়নের প্রায় ২ হাজার ৬০০ জন দুস্থ নারীকে একটি করে শাড়ি উপহার হিসেবে প্রদান করেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন- উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হেলেনা পারভিন, পৌর মেয়র আবুবক্কর সিদ্দিক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (নালিতাবাড়ী সার্কেল) আফরোজা নাজনীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া বুলু ছাড়াও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন