ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতায় আরও ৫ জন গ্রেফতার 
jugantor
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতায় আরও ৫ জন গ্রেফতার 

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

০৭ মে ২০২১, ১৬:০৮:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নতুন করে হেফাজতে ইসলামের পাঁচ কর্মী ও সমর্থককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ নিয়ে এ ঘটনায় গ্রেফতারের সংখ্যা ৪৩৯ জনে দাঁড়ালো। এ ঘটনায় করা ৫৬ টি মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সহিংস ঘটনাসমূহের প্রাপ্ত স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে অভিযুক্তদের শনাক্ত করা হচ্ছে। গ্রেফতাররা হেফাজতে ইসলামের কর্মী ও সমর্থক বলে পুলিশের দাবি।

হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানায় সর্বমোট ৪৯টি, আশুগঞ্জ থানায় ৪টি ও সরাইল থানায় ২টি ও রেলওয়ে থানায় ১টিসহ সর্বমোট ৫৬ টি মামলা করা হয়েছে। এ সব মামলায় ৪৩৯জন এজাহারভুক্ত আসামিসহ অজ্ঞাতনামা ৩০ থেকে ৩৫ হাজার মানুষকে আসামি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে গিয়ে হেফাজতের ব্যানারে মাদ্রাসার ছাত্ররা গত ২৬ মার্চ বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে হামলা চালিযে ব্যাপক ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। ওইদিন বিক্ষোভকারীরা বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে হামলা চালিয়ে জাতির জনকের ম্যুরাল ভাংচুরসহ বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ চালায়।

এ ছাড়া গত ২৮ মার্চ হরতাল চলাকালে হরতাল সমর্থকরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়সহ সরকারি ও বেসরকারি প্রায় অর্ধশতাধিক স্থাপনা ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে ধ্বংসযজ্ঞে পরিণত করে। এ ঘটনায় পুলিশের গুলিতে ১২ জন নিহত হন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতায় আরও ৫ জন গ্রেফতার 

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
০৭ মে ২০২১, ০৪:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নতুন করে হেফাজতে ইসলামের পাঁচ কর্মী ও সমর্থককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

এ নিয়ে এ ঘটনায় গ্রেফতারের সংখ্যা ৪৩৯ জনে দাঁড়ালো। এ ঘটনায় করা ৫৬ টি মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। 

গতকাল বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সহিংস ঘটনাসমূহের প্রাপ্ত স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে অভিযুক্তদের শনাক্ত করা হচ্ছে। গ্রেফতাররা হেফাজতে ইসলামের কর্মী ও সমর্থক বলে পুলিশের দাবি। 

হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানায় সর্বমোট ৪৯টি, আশুগঞ্জ থানায় ৪টি ও সরাইল থানায় ২টি ও রেলওয়ে থানায় ১টিসহ সর্বমোট ৫৬ টি মামলা করা হয়েছে। এ সব মামলায় ৪৩৯জন এজাহারভুক্ত আসামিসহ অজ্ঞাতনামা ৩০ থেকে ৩৫ হাজার মানুষকে আসামি করা হয়েছে। 

প্রসঙ্গত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে গিয়ে হেফাজতের ব্যানারে মাদ্রাসার ছাত্ররা গত ২৬ মার্চ বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে হামলা চালিযে ব্যাপক ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। ওইদিন বিক্ষোভকারীরা বঙ্গবন্ধু স্কয়ারে হামলা চালিয়ে জাতির জনকের ম্যুরাল ভাংচুরসহ বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ চালায়। 

এ ছাড়া গত ২৮ মার্চ হরতাল চলাকালে হরতাল সমর্থকরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়সহ সরকারি ও বেসরকারি প্রায় অর্ধশতাধিক স্থাপনা ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে ধ্বংসযজ্ঞে পরিণত করে। এ ঘটনায় পুলিশের গুলিতে ১২ জন নিহত হন। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন