নির্বাচনী সংঘর্ষে আ’লীগ প্রার্থী নিহত
jugantor
নির্বাচনী সংঘর্ষে আ’লীগ প্রার্থী নিহত

  হাতিয়া প্রতিনিধি   

০৭ মে ২০২১, ২১:০৮:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলার ঘটনায় জোবায়ের হোসেন (৪৫) নামে আওয়ামী লীগ সমর্থিত এক মেম্বার প্রার্থী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। শুক্রবার সকালে হাতিয়ার সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গা বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহত জোবায়ের হোসেন সোনাদিয়া ইউনিয়নের মধ্য চরচেঙ্গা গ্রামের মৃত আবু তাহেরের ছেলে। তিনি সোনাদিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার প্রার্থী ছিলেন। আহতরা হলেন- মেহেদী হানান জীবন (২২), মো. ইরাক (৩৫), মো. রাজু (৩০), মো. রহিম (৩৮)। আহতদের হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদের মধ্যে পায়ের রগ কেটে যাওয়ায় মো. ইরাকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার শেখ মাহমুদ। আহত সবার বাড়ি উপজেলার সোনাদিয়া ইউনিয়নে। তারা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মেহেদী হাসানের সমর্থক।

সংশ্লিষ্টরা জানান, আজ সকালে বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে চরচেঙ্গা বাজারে ইউনিয়ন পরিষদের চাল বিতরণ করা হয়। এ সময় বিতরণে অনিয়মের কথা বলে কয়েকজন প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যানের লোকজন এসে তাদের প্রতিহত করে। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর উত্তর দিক থেকে চেয়ারম্যানের লোকজন অস্ত্র নিয়ে এসে বাজারে অতর্কিত হামলা চালায়।

এ সময় বাজারে বিচ্ছিন্ন বিক্ষিপ্তভাবে থাকা নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের পিটিয়ে বাজার থেকে বের করে দেয় নুরুল ইসলামের লোকজন। এ সময় জোবায়ের তার অফিসে অবস্থান করছিল। তাকেও সন্ত্রাসীরা বাজার থেকে চলে যেতে বললে সে চলে না যাওয়ায় প্রথমে তাকে গুলি করে, পরে তার পায়ের দুটি রগ কেটে দেয়। এ অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাতিয়া থানা ওসি মো. আবুল খায়ের বলেন, অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে। এখনো অভিযান চলছে।

নির্বাচনী সংঘর্ষে আ’লীগ প্রার্থী নিহত

 হাতিয়া প্রতিনিধি  
০৭ মে ২০২১, ০৯:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলার ঘটনায় জোবায়ের হোসেন (৪৫) নামে আওয়ামী লীগ সমর্থিত এক মেম্বার প্রার্থী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। শুক্রবার সকালে হাতিয়ার সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গা বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহত জোবায়ের হোসেন সোনাদিয়া ইউনিয়নের মধ্য চরচেঙ্গা গ্রামের মৃত আবু তাহেরের ছেলে। তিনি সোনাদিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার প্রার্থী ছিলেন। আহতরা হলেন- মেহেদী হানান জীবন (২২), মো. ইরাক (৩৫), মো. রাজু (৩০), মো. রহিম (৩৮)। আহতদের হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

এদের মধ্যে পায়ের রগ কেটে যাওয়ায় মো. ইরাকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার শেখ মাহমুদ। আহত সবার বাড়ি উপজেলার সোনাদিয়া ইউনিয়নে। তারা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মেহেদী হাসানের সমর্থক।

সংশ্লিষ্টরা জানান, আজ সকালে বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে চরচেঙ্গা বাজারে ইউনিয়ন পরিষদের চাল বিতরণ করা হয়। এ সময় বিতরণে অনিয়মের কথা বলে কয়েকজন প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যানের লোকজন এসে তাদের প্রতিহত করে। এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর উত্তর দিক থেকে চেয়ারম্যানের লোকজন অস্ত্র নিয়ে এসে বাজারে অতর্কিত হামলা চালায়। 

এ সময় বাজারে বিচ্ছিন্ন বিক্ষিপ্তভাবে থাকা নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের পিটিয়ে বাজার থেকে বের করে দেয় নুরুল ইসলামের লোকজন। এ সময় জোবায়ের তার অফিসে অবস্থান করছিল। তাকেও সন্ত্রাসীরা বাজার থেকে চলে যেতে বললে সে চলে না যাওয়ায় প্রথমে তাকে গুলি করে, পরে তার পায়ের দুটি রগ কেটে দেয়। এ অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাতিয়া থানা ওসি মো. আবুল খায়ের বলেন, অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে। এখনো অভিযান চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন