ভোলায় অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যাচেষ্টা
jugantor
ভোলায় অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যাচেষ্টা

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ভোলা  

০৮ মে ২০২১, ০৮:৩৬:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

হত্যাচেষ্টা

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় অটোরিকশাচালক এক কিশোরকে গলা কেটে হত্যাচেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় তার অটোরিকশাটিও ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে তারা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মধ্য জয়নগর ৪নং ওয়ার্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত কিশোরের নাম শান্ত। সে দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মো. রফিকের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, শান্ত প্রতিদিনের মতো ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাটি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। দৌলতখান বাজারের খলিফাপট্টি মসজিদের সামনে পৌঁছালে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ওঁৎ পেতে থাকা তিন যাত্রী তাকে নিয়ে বাংলাবাজার এলাকায় আশে।

পরে রিকশার ওই তিন যাত্রী চালককে একটি শাখা রাস্তায় নিয়ে রিকশা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তার গলায় ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে।

এসময় ওই কিশোরের চিৎকারে আশপাশের লোকজন আসলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

বাংলাবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরের রিকশাটি উদ্ধার করি। আমরা যাওয়ার আগেই স্থানীয়রা রিকশাচালক কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তার গলায় বেশ কয়েকটি সেলাই লেগেছে। তবে সে এখন আশংকামুক্ত।

ভোলায় অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যাচেষ্টা

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ভোলা 
০৮ মে ২০২১, ০৮:৩৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হত্যাচেষ্টা
ফাইল ছবি

ভোলার দৌলতখান উপজেলায় অটোরিকশাচালক এক কিশোরকে গলা কেটে হত্যাচেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় তার অটোরিকশাটিও ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে তারা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মধ্য জয়নগর ৪নং ওয়ার্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত কিশোরের নাম শান্ত। সে দৌলতখান উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মো. রফিকের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, শান্ত প্রতিদিনের মতো ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাটি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। দৌলতখান বাজারের খলিফাপট্টি মসজিদের সামনে পৌঁছালে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ওঁৎ পেতে থাকা তিন যাত্রী তাকে নিয়ে বাংলাবাজার এলাকায় আশে।

পরে রিকশার ওই তিন যাত্রী চালককে একটি শাখা রাস্তায় নিয়ে রিকশা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তার গলায় ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে।

এসময় ওই কিশোরের চিৎকারে আশপাশের লোকজন আসলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

বাংলাবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরের রিকশাটি উদ্ধার করি। আমরা যাওয়ার আগেই স্থানীয়রা রিকশাচালক কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তার গলায় বেশ কয়েকটি সেলাই লেগেছে। তবে সে এখন আশংকামুক্ত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন