গরু পাহারা দিতে বারান্দায় ঘুমানো স্বামী-স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ
jugantor
গরু পাহারা দিতে বারান্দায় ঘুমানো স্বামী-স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

  নাটোর ও বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি  

০৮ মে ২০২১, ১০:৪১:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজ ঘরের বারান্দায় স্বামী-স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় নিজ ঘরের বারান্দা থেকে বৃদ্ধ স্বামী ও স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার সকাল ৯টার সময় উপজেলার জামনগর পশ্চিমপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির বারান্দা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- মো. আমির হোসেন (৭০) ও আলেকা বেগম (৬৫)। তারা একই এলাকার বাসিন্দা। ওই দম্পতির একমাত্র ছেলে ও ছেলের বউ চাকরির সুবাদে গাজীপুর এলাকায় থাকেন। বাড়িতে তারা দুজনই থাকতেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে গরু পাহারা দেয়ার জন্য ঘরের ভিতরে না শুয়ে অন্য দিনের মতোই বারান্দার চৌকিতে মশারি টাঙ্গিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা ওই বয়স্ক দম্পতিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

শনিবার সকালে প্রতিবেশীরা বাড়িতে উভয়ের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। এসময় নিহত উভয়ের মাথা ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে গরু চুরি করার সময় দেখে ফেলায় তাদের হত্যা করা হয়েছে এমন ধারণা করলেও কোনো গরু চুরি না হওয়ায় হত্যার রহস্য আরও জটিল হয়ে পড়েছে।

তবে এলাকাবাসী বলেছেন, নিহতদের একমাত্র নাতি মেহেদী হাসান লেমনকে (১৭) শনিবার সকালে একবার ওই বাড়িতে দেখা গেছে। মেহেদী হাসান লেমন মাদকাসক্ত। তাই এ ঘটনার সঙ্গে তার কোনো সর্ম্পক আছে কি না পুলিশ তা তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনার পর থেকে মেহেদী হাসান লেমনও পলাতক রয়েছে।

বাগাতিপাড়া মডেল থানার ওসি মো. নাজমুল হক বলেছেন, তারা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন। নিহতদের ময়নাতদন্ত ও মামলা দায়েরের পাশাপাশি হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য কাজ শুরু হয়েছে।

গরু পাহারা দিতে বারান্দায় ঘুমানো স্বামী-স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

 নাটোর ও বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি 
০৮ মে ২০২১, ১০:৪১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিজ ঘরের বারান্দায় স্বামী-স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ
ছবি: যুগান্তর

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় নিজ ঘরের বারান্দা থেকে বৃদ্ধ স্বামী ও স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার সকাল ৯টার সময় উপজেলার জামনগর পশ্চিমপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির বারান্দা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

 নিহতরা হলেন- মো. আমির হোসেন (৭০) ও আলেকা বেগম (৬৫)। তারা একই এলাকার বাসিন্দা। ওই দম্পতির একমাত্র ছেলে ও ছেলের বউ চাকরির সুবাদে গাজীপুর এলাকায় থাকেন। বাড়িতে তারা দুজনই থাকতেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে গরু পাহারা দেয়ার জন্য ঘরের ভিতরে না শুয়ে অন্য দিনের মতোই বারান্দার চৌকিতে মশারি টাঙ্গিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা ওই বয়স্ক দম্পতিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

শনিবার সকালে প্রতিবেশীরা বাড়িতে উভয়ের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। এসময় নিহত উভয়ের মাথা ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে গরু চুরি করার সময় দেখে ফেলায় তাদের হত্যা করা হয়েছে এমন ধারণা করলেও কোনো গরু চুরি না হওয়ায় হত্যার রহস্য আরও জটিল হয়ে পড়েছে।

তবে এলাকাবাসী বলেছেন, নিহতদের একমাত্র নাতি মেহেদী হাসান লেমনকে (১৭) শনিবার সকালে একবার ওই বাড়িতে দেখা গেছে। মেহেদী হাসান লেমন মাদকাসক্ত। তাই এ ঘটনার সঙ্গে তার কোনো সর্ম্পক আছে কি না পুলিশ তা তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনার পর থেকে মেহেদী হাসান লেমনও পলাতক রয়েছে।

বাগাতিপাড়া মডেল থানার ওসি মো. নাজমুল হক বলেছেন, তারা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন। নিহতদের ময়নাতদন্ত ও মামলা দায়েরের পাশাপাশি হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য কাজ শুরু হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন