আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত
jugantor
আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত

  শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

০৯ মে ২০২১, ১০:১০:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের আর্য্য দত্তপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবকের নাম রাকিব খালাসি (২৪)। তিনি উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের আর্য্য দত্তপাড়া এলাকার বেপারিকান্দি গ্রামের ফারুক খালাসীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকালে এলাকার তাওসিফ (১২) নামে এক কিশোর পার্শ্ববর্তী মঙ্গল হাওলাদারের আমগাছে ঢিল ছোড়ে।

এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। ওই সূত্র ধরে রাত ৮টার দিকে মঙ্গল হাওলাদারসহ ৮-১০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাওসিফদের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় তাওসিফের মা রুবি বেগমকে (৪৫) মারধর করা হয়। এতে বাধা দিতে গেলে তাওসিফের ভাই রাকিব খালাসীকে তুলে নিয়ে পাশের কলাবাগানে নিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে কালু মিয়া (৩৭), সাবিনা বেগম (৩২) এবং উর্মি বেগম (তৃতীয় লিঙ্গ) আহত হন।

আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাকিব ও তার মা রুবি বেগমকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাকিবের মৃত্যু হয়।

নিহতের বাবা ফারুক খালাসী বলেন, আমার ছেলেকে ওরা ধইরা পাশের কলাবাগানে নিয়া কোপাইয়া মারছে।

শিবচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমির হোসেন সেরনিয়াবাত বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পরিদর্শন করেছে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে সংঘর্ষে যুবক নিহত

 শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
০৯ মে ২০২১, ১০:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
ফাইল ছবি

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

 শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের আর্য্য দত্তপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবকের নাম রাকিব খালাসি (২৪)। তিনি উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের আর্য্য দত্তপাড়া এলাকার বেপারিকান্দি গ্রামের ফারুক খালাসীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকালে এলাকার তাওসিফ (১২) নামে এক কিশোর পার্শ্ববর্তী মঙ্গল হাওলাদারের আমগাছে ঢিল ছোড়ে।

এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। ওই সূত্র ধরে রাত ৮টার দিকে মঙ্গল হাওলাদারসহ ৮-১০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাওসিফদের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় তাওসিফের মা রুবি বেগমকে (৪৫) মারধর করা হয়। এতে বাধা দিতে গেলে তাওসিফের ভাই রাকিব খালাসীকে তুলে নিয়ে পাশের কলাবাগানে নিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে কালু মিয়া (৩৭), সাবিনা বেগম (৩২) এবং উর্মি বেগম (তৃতীয় লিঙ্গ) আহত হন।

আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাকিব ও তার মা রুবি বেগমকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাকিবের মৃত্যু হয়।

নিহতের বাবা ফারুক খালাসী বলেন, আমার ছেলেকে ওরা ধইরা পাশের কলাবাগানে নিয়া কোপাইয়া মারছে।

শিবচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমির হোসেন সেরনিয়াবাত বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পরিদর্শন করেছে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন