বেতন-বোনাস চাওয়ায় কারখানায় শ্রমিক অবরুদ্ধ!
jugantor
বেতন-বোনাস চাওয়ায় কারখানায় শ্রমিক অবরুদ্ধ!

  যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর  

১১ মে ২০২১, ২০:০৬:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর সদর উপজেলার হোতাপাড়া এলাকায় একটি কারখানার শ্রমিকেরা বেতন-বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরে কর্তৃপক্ষ দাবি মেনে নেওয়ার কথা বলে কারখানায় ঢুকিয়ে শ্রমিকদের অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাদের মুক্ত করে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে বেতন-বোনাস ও ছুটির দাবিতে বিক্ষোভকারী শ্রমিকদের অবরুদ্ধ করে রাখে কর্তৃপক্ষ। এ সময় শ্রমিকদের মাঝে এক ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

জয়দেবপুর থানার ওসি মামুন আল রশিদ জানান, শ্রমিকরা বেতন-বোনাস না পেয়ে বিক্ষোভ করছিলেন। পরে আমরা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছি।

শ্রমিক অবরুদ্ধ কেন রাখা হয়েছে? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ফুওয়াং ফুড মালিক আসবে তাই ভিতরে রাখা হয়েছে।

কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরা জানান, আমরা এখন পর্যন্ত কোনো বেতন-বোনাস পাইনি এবং আমাদের বলা হচ্ছে শুধু বেতন পরিশোধ করা হবে বোনাস দেওয়া হবে না। আমাদের বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে খুব অসহায় দিনযাপন করছি। আর মাত্র এক বা দুই দিন বাকি ঈদের, এখনো কিছু কিনতে পারেনি। বেতন-বোনাস কবে দেওয়া হবে সে বিষয়ে কিছু বলছে না কারখানা কর্তৃপক্ষ।

শ্রমিকরা আরও জানান, চার মাস ধরে বাড়তি কোনো বেতন-বোনাস পাচ্ছি না। প্রতি বছরে সরকারি ৫ শতাংশ বেতন বাড়ানোর কথা থাকলেও ফুওয়াং ফুড কারখানা এসব আইন মানছে না।

এ ব্যাপারে ফুয়াং ফুড লিমিটেড ম্যানেজার শুকুর মাহবুব জানান, শ্রমিকদের অবরুদ্ধ রাখার বিষয় সঠিক নয়। তবে সিকিউরিটি গার্ড যে অন্যায় করছে সাংবাদিকদের সঙ্গে তার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মালিক আসার অপেক্ষা করছি।

বেতন-বোনাস চাওয়ায় কারখানায় শ্রমিক অবরুদ্ধ!

 যুগান্তর প্রতিবেদন, গাজীপুর 
১১ মে ২০২১, ০৮:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর সদর উপজেলার হোতাপাড়া এলাকায় একটি কারখানার শ্রমিকেরা বেতন-বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরে কর্তৃপক্ষ দাবি মেনে নেওয়ার কথা বলে কারখানায় ঢুকিয়ে শ্রমিকদের অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাদের মুক্ত করে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টা থেকে বেতন-বোনাস ও ছুটির দাবিতে বিক্ষোভকারী শ্রমিকদের অবরুদ্ধ করে রাখে কর্তৃপক্ষ। এ সময় শ্রমিকদের মাঝে এক ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

জয়দেবপুর থানার ওসি মামুন আল রশিদ জানান, শ্রমিকরা বেতন-বোনাস না পেয়ে বিক্ষোভ করছিলেন। পরে আমরা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছি।

শ্রমিক অবরুদ্ধ কেন রাখা হয়েছে? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ফুওয়াং ফুড মালিক আসবে তাই ভিতরে রাখা হয়েছে। 

কারখানায় কর্মরত শ্রমিকরা জানান, আমরা এখন পর্যন্ত কোনো বেতন-বোনাস পাইনি এবং আমাদের বলা হচ্ছে শুধু বেতন পরিশোধ করা হবে বোনাস দেওয়া হবে না। আমাদের বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে খুব অসহায় দিনযাপন করছি। আর মাত্র এক বা দুই দিন বাকি ঈদের, এখনো কিছু  কিনতে পারেনি। বেতন-বোনাস কবে দেওয়া হবে সে বিষয়ে কিছু বলছে না কারখানা কর্তৃপক্ষ।

শ্রমিকরা আরও জানান, চার মাস ধরে বাড়তি কোনো বেতন-বোনাস পাচ্ছি না। প্রতি বছরে সরকারি ৫ শতাংশ বেতন বাড়ানোর কথা থাকলেও ফুওয়াং ফুড কারখানা এসব আইন মানছে না।

এ ব্যাপারে ফুয়াং ফুড লিমিটেড ম্যানেজার শুকুর মাহবুব জানান, শ্রমিকদের অবরুদ্ধ রাখার বিষয় সঠিক নয়। তবে সিকিউরিটি গার্ড যে অন্যায় করছে সাংবাদিকদের সঙ্গে তার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মালিক আসার অপেক্ষা করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন