সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা!
jugantor
সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা!

  ভৈরব প্রতিনিধি  

১২ মে ২০২১, ০১:০৮:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা!

ভৈরবে গাঁজাসহ গ্রেফতার হয়েছেন মজিবুর (৪০) নামের এক ব্যক্তি। তার বাড়ি শহরের লক্ষীপুর এলাকার। সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা চালাতেন তিনি।

মঙ্গলবার রাতে শহরের শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেট থেকে ৪ কেজি গাঁজাসহ মজিবুরকে আটক করেছে ভৈরব থানার পুলিশ।

পুলিশ জানায়,রাজধানী ঢাকা, ভৈরব ও কুলিয়ারচরে একাধিক মাদক মামলার আসামি এই মজিবুর। তিনি কখনো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সোর্স, কখনো সুতার ব্যাবসায়ী। এক সময় দীর্ঘদিন যাবত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সোর্স হিসেবে কাজ করেছিলেন মজিবুর। এছাড়াও মজিবুর নিজেকে শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেটের সভাপতি ও একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দাতা সদস্য বলে পরিচয় দিয়ে থাকেন। এসবের আড়ালেই মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন নিয়মিত।

ভৈরব থানার উপ-পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ রাত ৭ টার দিকে শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেটে অভিযান চালিয়ে মজিবুরকে আটক করা হয়। পরে তার অফিস তল্লাশি করে ৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ভৈরব থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের বিশেষ ক্ষমতায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে ।

পুলিশ সূত্র আরো জানায়, গত বছর ২০ কেজি গাঁজাসহ আটক হয়েছিলেন মজিবুর। গত ২৭ অক্টোবর ঢাকার খিলগাঁও এলাকা থেকে মজিবুরকে আটক করে ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগ। সে সময় মাদক বহনের অভিযোগে তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি জব্ধ করে পুলিশ। ওই বছরে ফের তাকে ৫ কেজি গাঁজাসহ আটক করে ভৈরব র‍্যাব ক্যাম্প সদস্যরা।

সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা!

 ভৈরব প্রতিনিধি 
১২ মে ২০২১, ০১:০৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা!
গ্রেফতার মজিবুর। ছবি: যুগান্তর

ভৈরবে গাঁজাসহ গ্রেফতার হয়েছেন মজিবুর (৪০) নামের এক ব্যক্তি। তার বাড়ি শহরের লক্ষীপুর এলাকার। সুতা ব্যবসার আড়ালে রমরমা মাদক ব্যবসা চালাতেন তিনি। 

মঙ্গলবার রাতে শহরের শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেট থেকে ৪ কেজি গাঁজাসহ মজিবুরকে আটক করেছে ভৈরব থানার পুলিশ।

পুলিশ জানায়,রাজধানী ঢাকা, ভৈরব ও কুলিয়ারচরে একাধিক মাদক মামলার আসামি এই মজিবুর। তিনি কখনো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সোর্স, কখনো সুতার ব্যাবসায়ী।  এক সময় দীর্ঘদিন যাবত  আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সোর্স হিসেবে কাজ করেছিলেন মজিবুর। এছাড়াও মজিবুর  নিজেকে শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেটের সভাপতি ও একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দাতা সদস্য বলে পরিচয় দিয়ে থাকেন। এসবের আড়ালেই মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন নিয়মিত।

ভৈরব থানার উপ-পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ রাত ৭ টার দিকে শহীদুল্লাহ কায়সার পাদুকা মার্কেটে অভিযান চালিয়ে মজিবুরকে আটক করা হয়। পরে  তার অফিস তল্লাশি করে ৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ভৈরব থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের বিশেষ ক্ষমতায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে । 
 
পুলিশ সূত্র আরো জানায়, গত বছর ২০ কেজি গাঁজাসহ আটক হয়েছিলেন মজিবুর। গত ২৭ অক্টোবর ঢাকার খিলগাঁও এলাকা থেকে মজিবুরকে আটক করে ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগ। সে সময় মাদক বহনের অভিযোগে তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি জব্ধ করে পুলিশ।  ওই বছরে ফের তাকে ৫ কেজি গাঁজাসহ আটক করে ভৈরব র‍্যাব ক্যাম্প সদস্যরা। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন